২২ নভেম্বর ২০১৯, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

চট্টগ্রাম আবাহনীকে শিরোপা উপহার দিতে চান জামাল

প্রকাশিত : ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:০৭ পি. এম.
চট্টগ্রাম আবাহনীকে শিরোপা উপহার দিতে চান জামাল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শুরু হয়ে গেল মহাযজ্ঞ। শনিবার থেকে চট্টগ্রামে পর্দা উঠছে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবলের। টুর্নামেন্ট উপলক্ষ্যে শুক্রবার এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। সেখানে আট দলের মধ্যে ছয় দল উপস্থিত ছিল। ভারতের চেন্নাই সিটির গত রাতে আসার কথা। আর এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ঢাকা আবাহনীর বিকল্প হিসেবে যুক্ত হওয়া ভারতের গকুলাম কেরালা এএফসির ছাড়পত্র পায়নি। ফলে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিল ছয় দলের কোচ, অধিনায়ক ও ম্যানেজার।

এবার জাতীয় দলের অধিনায়ক জামাল ভুইয়া খেলছেন চট্টগ্রাম আবাহনীতে। অতিথি হিসেবে খেললেও তিনি চট্টগ্রামকে শিরোপা উপহার দিতে চান। জামাল ভুইয়া বলেন, কিছু বলার নেই। কোচ বলেছেন আমাদের লক্ষ্যের কথা। আবাহনীর একমাত্র লক্ষ্য শিরোপা জয়। আশা করছি সেটা হবে। আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ এগিয়ে যেতে চাই। জিতে শূরু করতে চাই। চট্টগ্রাম আবাহনীর অধিনায়ক আরও বলেন, আমি দলে যোগ দিয়েছি বৃহস্পতিবার। মন খারাপ ছিল, সল্ট লেকের বিষয়, তাই কারও সাথে শেয়ার করিনি।আমার লক্ষ্য হচ্ছে চ্যাম্পিয়ন হওয়া। চিটাগাং এসেছি শিরোপা জয়ের জন্য। এজন্য চাপ কোনো বিষয় না। সবসময় এটা থাকে। সমর্থকরা চাইবেই, এটা স্বাভাবিক ব্যাপার। আমরা তাদের শিরোপা উপহার দিতে চাই।

চট্টগ্রাম আবাহনীর কোচ মারুফুল হক বলেন, এই টুর্নামেন্টে প্রথম আসওর চট্টগ্রাম আবাহনী চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। আমরা এবার তিন সপ্তাহ প্রস্তুতি নিয়েছি। জাতীয় দলের ছয়জন ছিল, তারা গতকাল যোগ দিয়েছে। আমরা শিরোপা পুনরুদ্ধার করতে চাই। তবে প্রথম লক্ষ্য সেফিফাইনাল। অন্যরাও ভাল দল। তাই চ্যালেঞ্জ হবে। তিনি জানান দলে বিদেশীদের মধ্যে আছেন মন্টেনিগ্রোর লূকা, আইভরিকোস্টের দিদিয়ের, আরামবাগ থেকে আসা ম্যাথিউ এবং ২০১০ বিশ্বকাপে ঘানার হয়ে খেলা ক্রিস্টাগো।

বিদেশীদের প্রসঙ্গে মারুফুল বলেন, সোনালী সময় পার করে বিদেশীরা এসেছে। তবে আমাদের দেশে যারা আসে তাদের চেয়ে ভাল। আমাদের দলে জাতীয় দলের পাঁচজন আছে। আশা করছি ভাল হবে। জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের খুব বেশি পাইনি, বিদেশীদের পেয়েছি। কম্বিনেশন হয়ত খুব একটা ভাল হবে না, তবে আমি চেষ্টা করছি। প্রথম আসরে ১১ জন বাইরের ছিল, তবু টিম চাম্পিয়ন হয়েছিল। অন্যরা আসাতে সমস্যা নেই। চিটাগং আবাহনীর কোচ আবারও বলেন, আমাদের প্রথম লক্ষ্য শিরোপা পুনরুদ্ধার। তবে তার আগে সেফিাইনাল নিশ্চিত করতে হবে। টিসির পাঁচটা ম্যাচ দেখেছি। ওরা ভাল দল। বেশ কয়েকজন ভাল খেলোয়াড় আছে।

কাল মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টসের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়েই মিশন শূরু করছে চট্টগ্রাম আবাহনী। টিসি স্পোটর্সের হেড কোচ আফিয়া মোহাম্মদ হামিদ বলেন, টুর্নামেন্ট কমিটিকে ধন্যবাদ আয়োজন করায়। আমরা বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। আবারও আমরা জিততে চাই। আমার টিম প্রস্তুত। দলটির ম্যানেজার মোহাম্মদ আবিরও একই লক্ষ্যেও কথা জানান।

প্রকাশিত : ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:০৭ পি. এম.

১৮/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলা



শীর্ষ সংবাদ: