১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

তথ্যপ্রযুক্তি প্রদর্শনীতে খুদে প্রযুক্তিবিদদের উদ্ভাবিত পণ্য

প্রকাশিত : ১৬ অক্টোবর ২০১৯
  • আজ রাত ৮ পর্যন্ত চলবে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তথ্যপ্রযুক্তি প্রদর্শনী ‘ডিজিটাল ডিভাইস এ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো ২০১৯’র দ্বিতীয় দিন দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের খুদে প্রযুক্তিবিদরা রোবটসহ তাদের উদ্ভাবিত পণ্য নিয়ে হাজির হয়েছেন। এক্সপোতে দ্বিতীয় দিন তথ্যপ্রযুক্তির নানা ধরনের ডিভাইস প্রদর্শিত হয়েছে। কেউ এক্সপো ঘুরে ঘুরে পচ্ছন্দমতো বিভিন্ন ডিভাইস কিনছেন। ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ স্লোগানে সোমবার শুরু হওয়া এক্সপো বুধবার রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে। এক্সপোতে দেশী-বিদেশী শতাধিক প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে। বিশেষ করে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ও স্কুল তাদের আবিষ্কার নিয়ে হাজির হয়েছে। তিনদিনের এই এক্সপোতে কয়েকটি তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক প্রবন্ধ উপস্থান করা হবে। এখান থেকেও তরুণ-তরুণীরা তথ্যপ্রযুক্তি সম্পর্কে জ্ঞান আরোহন করতে পারবেন।

মেলায় এবিএল মিনি কম্পিউটার (কাঠের বক্সে সিপিইউ) র‌্যাম ২ জিবি, হার্ডডিস্ক ৮০ জিবি, মনিটর বাংলাদেশী, ৮ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এই কম্পিউটার অনলাইন থেকেও অর্ডার করে কেনা যাবে। বিইএসটি প্রাইজ বাংলাদেশ, গাড়ির যন্ত্রাংশের দর দাম জানা যাবে। বিইএসটিতে গত মাসেই ২শ’ গ্রাহক সেবা পেয়েছে। ডিজিটাল গার্মেন্টস, সিআরআইডি ডেম রোবটিক ল্যাবস, অটোমেটিক হুইল চেয়ার (নিজে নিজেই চলবে) ব্লাইন্ড স্টিক দৃষ্টি প্রতিবন্ধীকে সাহাজ্য করবে। এগ্রিকালচার উন্নয়ন নিয়েও এসেছে বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি নিয়ে এসেছে ইলেক্ট্রো হেলথ, ফিশ এক্সপাটসহ কয়েকটি আবিষ্কার। ভেহিকেল ফুয়েল এক্টিভিটিস মনিটরিং সিস্টেম, ৩০ হাজার টাকা লাগবে, কত টাকার তেল নিচ্ছে, কয় লিটার তেল নিচ্ছে, কাকে গাড়িতে উঠাছে সব জানা যাবে। সিটি ইউনিভার্সিটি নিয়ে এসেছে আইওটি বেইজড ফাইয়ারফাইটার ফিভাইস। ইনস্টিটিউটশন অব ডিপ্লোপা ইঞ্জিনিয়ার্স (আইডিইবি) নিয়ে এসেছে আইওটি এ্যান্ড রোবটিক্স রিসার্স ল্যাব, মিস্টার টিভেট, হোম এসিস্ট্যান্ট, হসপিটালে পেশেন্টের দেখাশোনা, রেস্টুরেন্টে কাজ করার রোবট। এডুকেশনাল কিটের মাধ্যমে প্রোগ্রামিং শেখা যাবে, রোবটিক্স ও ইলেক্ট্রনিকসের বেসিক জ্ঞান অর্জন করা যাবে। আহসানউল্লাহ ইউনিভার্সিটি এনেছে রোবট বাংলা, খাবার সার্ভ করা, রোবট রেস্টুরেন্টে জেটা আছে ওই রকম কনফিগারেশন আছে সেইম কনফিগারেশন কিন্তু লো কস্ট। রেসিডেনশিয়াল মডেল কলেজ, সাউথ পয়েন্ট স্কুল, সেইভিয়র জোন, ব্রাকইউ ডুবুরি, পানির নিচে কাজ করে, দূষণজনিত সমস্যা শনাক্ত করবে এবং বার্তা পাঠাবে। আরও আবিষ্কারের সমারহ ডিভাইস এক্সপোতে স্থান পেয়েছে। এক্সপোতে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অসংখ্য ছাত্রছাত্রী অংশ নিয়েছেন। কেউ কেউ যাচ্ছেন নতুন কি ডিভাইস বাজারে এসেছে তার খোঁজখবর নিতে।

তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ, আইডিয়া প্রজেক্ট, এটুআই এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির (বিসিএস) যৌথ উদ্যোগে ডিজিটাল পণ্য এবং তরুণ প্রজন্মের উদ্ভাবিত প্রযুক্তি প্রদর্শন করা হচ্ছে।

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বাংলাদেশ বছরে চার কোটি মোবাইল ফোন আমদানি করে। সরকারের ব্যবসায়বান্ধব নীতির কারণে গত এক বছরে ওয়ালটন, সিম্ফোনিসহ কোরিয়ান স্যামসাং আমাদের হাইটেক পার্কে সেট উৎপাদন করছে। বাংলাদেশ হাইটেক পার্কের মাধ্যমে নতুন প্রযুক্তি ব্যবসায় উদ্যোক্তাদের সরকার সহযোগিতা করে আসছে। ডিজিটাল ডিভাইস এ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপোর মাধ্যমে বাংলাদেশ নিজস্ব সক্ষমতা প্রদর্শন করা হবে যেখানে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী, উদ্ভাবক এবং ব্যবসায়ীদের একই জায়গায় নিয়ে আসা হয়েছে।

প্রকাশিত : ১৬ অক্টোবর ২০১৯

১৬/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: