১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হোন : রাষ্ট্রপতি

প্রকাশিত : ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:০৬ পি. এম.
মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হোন : রাষ্ট্রপতি

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ ॥ রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ সরকারের চলমান অনিয়ম ও দুর্নীতি বিরোধী অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, এলাকায় সন্ত্রাস-চাঁদাবাজি ও মাদক বিক্রি-ব্যবহার রোধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। তিনি এসবের বিরুদ্ধে দলমত নির্বিশেষে সকলকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে বলেন। পাশাপাশি দুর্নীতিবাজ ও মাদক কারবারীদের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চরণ করেন।

এ সময় তিনি বিভিন্ন উন্নয়নের অপকীর্তি ও অনিয়ম রোধে প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সকলকে দায়িত্ব নিয়ে সঠিকভাবে তদারকি করার পরামর্শ দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি সোমবার বিকেলে কিশোরগঞ্জ জেলায় সপ্তাহব্যাপী সফরের ৬ষ্ঠ দিনে জেলার হাওড় উপজেলা অষ্টগ্রামের খেলার মাঠে আয়োজিত এক সুধী সমাবেশে এসব কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি ভৌগলিক অবস্থানের বর্ণনা দিতে গিয়ে বলেন, হাওড়াঞ্চলের জীব বৈচিত্র্যসহ সার্বিক পরিবেশ রক্ষায় সকলকে সতর্ক থাকতে হবে। এ সময় তিনি হাওড়ের প্রতিটি উপজেলার ইউনিয়নের সাথে জেলা শহরের যোগাযোগ ব্যবস্থায় ফ্লাইওভারের নির্মাণের পরিকল্পনা প্রসঙ্গে বলেন, হাওড়বাসীর সুবিধার জন্য সাবমার্সেবল রাস্তা করা হয়েছে। ভবিষ্যতে ফ্লাইওভারও করা হবে। কিন্তু জীবদ্দশায় হয়তো আমি দেখে যেতে পারব না। এ সময় তিনি হাওড়ের উন্নয়ন ও পরিবেশ রক্ষায় প্রশাসনসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।

মিঠামইন-ইটনা-অষ্টগ্রাম আসনের সংসদ সদস্য রাষ্ট্রপতির বড় ছেলে রেজওয়ান আহমেদ তৌফিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন বাজিতপুর-নিকলী আসনের সংসদ সদস্য মোঃ আফজাল হোসেন, কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া আসনের সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জিল্লুর রহমান, অষ্টগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম জেমস, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল হক হায়দারী বাচ্চু, অষ্টগ্রাম রোটারী ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মোস্তফা আরিফ খান প্রমুখ।

এ সময় রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, প্রেস সচিব মোঃ জয়নাল আবেদীন, জেলা প্রশাসক মোঃ সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোঃ মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পিপি শাহ আজিজুল হক, জেলা আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সভাপতি সৈয়দ শাহজাহানসহ বিভিন্ন সামরিক, বেসামরিক উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রপতি তাঁর বক্তব্যে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, হাওড়ের তিন উপজেলা ইটনা-মিঠামইন ও অষ্টগ্রামে ইতোমধ্যে তিনটি করে সরকারী কলেজ ও স্কুল প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। তবুও শিক্ষার গুণমান মানের উন্নয়ন হয়নি। এ সময় তিনি বিসিএস সহ যে কোনো প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে শিক্ষার্থীদের কঠোর মনোযোগী হয়ে পড়াশুনার তাগিদ দেন। পাশাপাশি এ ব্যাপারে এখানকার শিক্ষকদেরকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের জন্য বলেন।

রাষ্ট্রপতি হাওড়ের উন্নয়ন প্রসঙ্গে বলেন, ৬০ বছরের রাজনৈতিক জীবনে এ অঞ্চলের উন্নয়নে জীবনভর কাজ করেছি। হাওড়ে যোগাযোগের দৃশ্যত রাস্তাঘাট ছিল না। মূলত গত ১০-১১ বছরে হাওড়ে কাঙ্খিত দৃশ্যমান উন্নয়ন হয়েছে। আগামীতে হাওড় উপজেলাগুলোতে শিল্পকলা একাডেমী, মডেল মসজিদ নির্মাণসহ বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় সবাইকে একযোগে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি রাজনৈতিক নেতাদের উদ্দেশ্য করে বলেন, নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে জনগণের সাথে ভালো আচরণ করলেও পরবর্তীতে তাদের চরিত্র পাল্টে যায়। এমনটি কারো কাম্য নয়। কেননা নির্বাচনে জনগণ প্রার্থীদের কেউ পক্ষে আবার কেউ বিপক্ষে থাকবে-এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু পরবর্তীদের বিরোধীতাকারীদের প্রতি অনেকে বিরুপ আচরণ করে থাকেন।

এমনটি করা যাবে না। কারণ ভালো আচরণ বজায় থাকলে মানুষ আপনাদের চিরদিন মনে রাখবে। এ সময় তিনি আজীবন সুখে-দুঃখে মানুষের পাশের থাকার অঙ্গীকার করে উপস্থিত সকলের কাছে নিজের জন্য দোয়া চান। রাষ্ট্রপতির সুধী সমাবেশটি লোকজনের আগমনে বিশাল জনসভায় রূপ নেয়। অষ্টগ্রাম ও তার আশপাশ থেকে হাজার হাজার মানুষ তাঁর ভাষণ শুনতে সভায় যোগদান করেন।

ওইদিন রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বেলা ১২টায় ইটনা গার্লস স্কুল পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি ব্যাটারিচালিত একটি অটোরিকশা করে চিলনী সেতুসহ ইটনা উপজেলার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ দেখতে যান। পরে ডাকবাংলোয় তিনি দুপুরের খাবার গ্রহণ ও কিছুক্ষণ বিশ্রাম নিয়ে গার্ড অব অনার গ্রহণ করেন। বেলা পৌনে তিনটায় তিনি ইটনা থেকে হেলিকপ্টারযোগে অষ্টগ্রাম উপজেলা হেলিপ্যাডে পৌঁছেন। সেখান তাঁকে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

পরে তিনি ইটনা ডাকবাংলোয় গিয়ে গার্ড অব অনার গ্রহণ শেষে কিছুক্ষণ বিশ্রাম নেন। এরপর বিকেল ৪টার পর রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ অষ্টগ্রাম খেলার মাঠে আয়োজিত সুধী সমাবেশে যোগদান করেন। সন্ধ্যা ৭টায় তিনি অষ্টগ্রামস্থ রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ অডিটরিয়ামে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে মতবিনিময় করেন। ওইদিন তিনি জেলা পরিষদ ডাকবাংলোতে রাতযাপন করেন। আগামীকাল মঙ্গলবার সকালে তিনি অষ্টগ্রাম উপজেলার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ পরিদর্শনসহ বিকেল তিনটায় রাষ্ট্রপতি হেলিকপ্টারযোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে হাওড় উপজেলা অষ্টগ্রাম ত্যাগ করার কথা রয়েছে।

প্রকাশিত : ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:০৬ পি. এম.

১৪/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: