১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

ফেসবুকের ক্রিপটোকারেন্সি ঝুঁকিপূর্ণ!

প্রকাশিত : ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ১১:৫৭ এ. এম.
ফেসবুকের ক্রিপটোকারেন্সি ঝুঁকিপূর্ণ!

অনলাইন ডেস্ক ॥ চালু হওয়ার আগে আবার ধাক্কা খেল ফেসবুকের ডিজিটাল মুদ্রা লিবরা। বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতির দেশগুলো এক প্রতিবেদনে বলেছে, নিরাপদ ও সুরক্ষিত মনে না হওয়া অবধি ফেসবুকের ক্রিপটোকারেন্সি লিবরার অনুমোদন দেওয়া থেকে বিরত থাকা উচিত।

বিশ্বের শিল্পোন্নত দেশগুলোর সংস্থা গ্রুপ অব সেভেনের (জি-সেভেন) এক প্রতিবেদনে সতর্ক করে বলা হয়, লিবরার মতো ক্রিপটোকারেন্সি বিশ্বব্যাপী আর্থিক ব্যবস্থাকে ঝুঁকিপূর্ণ করতে পারে। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

ওই খসড়া প্রতিবেদনে লিবরার মতো ডিজিটাল মুদ্রার সাতটি ঝুঁকি চিহ্নিত করা হয়। সতর্ক করে বলা হয়, ফেসবুক যদি ঝুঁকিগুলোর সমাধান করেও, তার পরও নিয়ন্ত্রকদের এর অনুমোদন দেওয়া ঠিক হবে না। জি-সেভেন টাস্কফোর্স ওই প্রতিবেদন তৈরি করেছে। এটি তৈরিতে দেশগুলোর কেন্দ্রীয় ব্যাংক, আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) এবং আর্থিক স্থিতিশীলতা বোর্ডের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অন্তর্ভুক্ত ছিলেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, লিবরার মতো ডিজিটাল মুদ্রা যেসব কোম্পানি বের করবে, তাদের অবশ্যই আইনি স্বচ্ছতা, গ্রাহকদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে। এই মুদ্রা অর্থ পাচার বা সন্ত্রাসবাদে ব্যবহার করা হবে না, তা নিশ্চিত করতে হবে।

সম্প্রতি লিবরা অ্যাসোসিয়েশন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা এসেছে ভিসা,মাস্টারকার্ড, স্ট্রিপ, মেরকাডো, পোগো ও ইবের কাছ থেকে। এর আগে লিবরার সঙ্গে থাকবে না বলে ঘোষণা দেয় পেপ্যাল। আর এরপর এখন এই ডিজিটাল মুদ্রা নিয়ে সতর্ক করল জি-সেভেনভুক্ত দেশগুলো।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমের বাইরে ই-কমার্স ও বৈশ্বিক পেমেন্ট সিস্টেমে ঢুকতে চাইছে ফেসবুক। এ লক্ষ্যে চলতি বছরের জুনে ‘লিবরা’ নামের ক্রিপটোকারেন্সি উন্মুক্ত করার পরিকল্পনার কথা জানায় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। প্রথমে এ ভার্চ্যুয়াল মুদ্রা চালু করতে ২৮টি সহযোগী প্রতিষ্ঠানকে যুক্ত করে ফেসবুক। এর পুরো বিষয় দেখাশোনা করবে জেনেভাভিত্তিক প্রতিষ্ঠান লিবরা অ্যাসোসিয়েশন। ২০২০ সালের প্রথমার্ধেই নতুন এ মুদ্রা বাজারে চালু করা হবে বলে জানায় ফেসবুক। তবে এখন এই মুদ্রার নিরাপত্তা ও গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। লিবরা ঘিরে বিভিন্ন দেশ থেকে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া পাচ্ছে ফেসবুক। এর অনুমোদন নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন আইনপ্রণেতারা। এ অবস্থায় প্রাথমিকভাবে যুক্ত হলেও এখন ফেসবুকের এই উদ্যোগের সঙ্গে না থাকার ঘোষণা আসছে সহযোগীদের কাছ থেকে।

প্রকাশিত : ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ১১:৫৭ এ. এম.

১৪/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: