১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

দ্যুতি ছড়াচ্ছেন ‘পূজা’

প্রকাশিত : ১০ অক্টোবর ২০১৯
  • খোকন ভূঁইয়া

পূজা চেরি শিশুশিল্পী হিসেবে শোবিজে পা রাখেন। নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করে অল্প দিনের মধ্যে সে খোলস ছাড়িয়ে বেরিয়ে আসেন তিনি। অভিনয় গুণে খুব কম সময়ের মধ্যে দ্যুতি ছড়িয়ে দর্শক মনেও জায়গা করে নেন এই অভিনেত্রী। ‘পোড়ামন-২’ সিনেমার মাধ্যমে প্রথম নায়িকা হিসেবে বড় পর্দায় হাজির হন পূজা চেরি। যদিও তার মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম সিনেমা ‘নূরজাহান’। এর পর ‘দহন’, ‘ প্রেম আমার-২’ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়। পূজা ছবিতে নিজের অভিনীত চরিত্রটি ফুটিয়ে তোলেন সাবলীলভাবে। তবে এ জন্য তার প্রস্তুতিটাও থাকে বেশ। প্রথমে স্ক্রিপ্ট পড়ে চরিত্র অনুযায়ী গেটআপ কেমন হবে সেটা নিয়ে চিন্তা করেন, তারপর পরিচালকের সঙ্গে আলোচনা করে তিনি নিজেকে প্রস্তুত করেন। আর তাই তো সেই চরিত্রটি ধারণ করে যখন তিনি পর্দায় হাজির হন, তখন সত্যিকার অর্থেই ভিন্ন একজন মানুষ হয়ে যান।

পূজার ছোটবেলায় খুব ইচ্ছে ছিল নায়িকা হবেন। হয়েছেনও তবে সে গল্পটি বেশ কঠিন। মনের ভেতর যখন স্বপ্নটি ধারণ করেন তখন সেটি কখনও হতাশ করেছে, আবার কখনও আশার আলো দেখিয়েছে। তবে কখনও মন খারাপ করেননি। অপেক্ষা করেছেন আজকের দিনটির জন্য। কথায় আছে অপেক্ষার ফল মিষ্টি হয়। আজ সেটাই হয়েছে, পূজা আজ নায়িকা। সবার ভালবাসা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন। তার সাফল্যের মূলমন্ত্র ধৈর্য-সততা-পরিশ্রম আর অভিনয়কে ভালবাসা। অভিনয়ের সঙ্গে জড়িয়ে থাকা মানুষগুলোকে মূল্যায়ন ও শ্রদ্ধা করা। বলেন, আমি ধৈর্য ধরেছি, সততার সঙ্গে কাজ করেছি, পরিশ্রম করেছি। এ ছাড়া চরিত্র নিয়ে আমাকে অনেক সাধনা করতে হয়েছে। সব সময় নিজের চরিত্রটাকে প্রাধান্য দিয়েছি। যে চরিত্রে কাজ করে দর্শককে মুগ্ধ করতে পারব বলে ধারণা করেছি, সেই চরিত্রেই কাজ করছি। পূজা ব্যস্ত আছেন ‘জিন’ ছবির শূটিং নিয়ে। জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত নাদের চৌধুরী পরিচালিত এ সিনেমায় জনপ্রিয় অভিনেতা সজলের সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করছেন তিনি। সজলের সঙ্গে এর আগে শিশুশিল্পী হিসেবে একটি নাটকে অভিনয় করেছিলেন পূজা। এখন কাজ করছেন তার নায়িকা হিসেবে। বলেন, সজল ভাইয়ের সঙ্গে অনেক বছর আগে একটা নাটকে কাজ করেছিলাম। আর এখন তার নায়িকা হয়ে কাজ করছি। অনেক ভাল লাগছে। তিনি অনেক মজার মানুষ। সারাক্ষণ হাসি, আড্ডা আর দুষ্টমিতে সেট মাতিয়ে রাখে। উনার সঙ্গে কাজ করে আমার অনেক ভাল লাগছে।

‘জিন’ প্রসঙ্গে পূজা বলেন, ‘ছবিতে আমার চরিত্রের নাম মোনালিসা কিন্তু সবাই আদর করে মোনা বলে ডাকে। ‘জিন’ ভৌতিক ঘরানার সিনেমা, এর চিত্রগ্রহণ দুর্দান্ত হয়েছে। ছবির গল্পটি যখন শোনায় বেশ ভয় পাই। গল্প শোনার পর বাথর মে যেতেও ভয় পেয়েছি। মেয়ের সঙ্গে মা জর্না রায়ও কথা মেলালেন বলেন, সেই রাতে পূজা অনেক ভয় পেয়েছিল। তা ছাড়া শুটিংয়ের দৃশ্য মনিটরে দেখেও ভয় পাচ্ছি। সিনেমাটির কিছু দৃশ্য খুবই ভয়ঙ্কর। ‘পোড়ামন-২’ সিনেমার প্রতিটি দৃশ্য যেমন দর্শক উপভোগ করেছেন। আশা করছি, ‘জিন’ সিনেমার প্রতিটি দৃশ্যও দর্শকদের ভাল লাগবে।’ ‘আমি বিশ্বাস করি দর্শক গল্পনির্ভর সুন্দর ছবি দেখতে পছন্দ করেন। এই ছবিতে দর্শক তা পাবে। সবাই যদি সিনেমা হলে ছবিটি দেখেন তাহলে প্রযোজকরা আরও গল্পনির্ভর ছবি নির্মাণ করতে সাহস পাবেন।’ ‘জিন’ ছবির কাজ শেষ হলে ‘শান’ সিনেমার কাজ শুরু করবেন। এত ব্যস্ততার মাঝে হাঁপিয়ে ওঠাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু পূজাকে নির্ঘুমও শূটিং করতে হচ্ছে এবং জ্বর নিয়েও কাজে অংশ নিচ্ছেন। এই বয়সেই এত ব্যস্ততা। ক্লান্ত লাগে না? ইনজয় করে কাজটি করছি। অভিনয় রক্তে মিশে গেছে। মানুষ হিসেবে তো একটু ক্লান্ত হই। তবে আমি যখন ক্যামেরার সামনে দাঁড়াই, ক্লান্তি ব্যাপারটা মাথায় থাকে না। তখন শুধু মাথায় ঘুরে বেড়ায় কত সুন্দর করে ডায়ালগটা দিলে দর্শকের ভাল লাগবে। এরপর যখন দেখি দর্শক সেই ডায়ালগ চরিত্রটি গ্রহণ করেছেন বা তাদের হৃদয়ে পৌঁছে গেছে, তখন নিজেকে সার্থক মনে হয়।

তাই কখনও ক্লান্ত অনুভব করি না। ভালবেসেই কাজগুলো করছি।’ Ñবললেন পূজা।

প্রকাশিত : ১০ অক্টোবর ২০১৯

১০/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: