১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

ব্যাংক খাতে তারল্য সংকটের উন্নতি

প্রকাশিত : ৮ অক্টোবর ২০১৯, ০৭:৩০ পি. এম.
ব্যাংক খাতে তারল্য সংকটের উন্নতি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ব্যাংক খাতে তারল্য সংকট কিছুটা কমেছে। অথচ বছরখানেক আগেও ব্যাংকগুলো তারল্য নিয়ে একধরনের চাপের মুখে ছিল। সংকট কাটাতে সরকারি তহবিলের অর্ধেক পাওয়ার সুযোগ, কেন্দ্রীয় ব্যাংকে নগদ জমার হার কমানোসহ আরও নানা সুযোগ দেওয়া হয়। এসব সুবিধার বিপরীতে সুদের হার কমানোর ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল। এ ছাড়া আমানত সংগ্রহে ব্যাংকগুলোর বিভিন্ন কৌশল গ্রহণ, ঋণ প্রদানে ভাটাসহ বিভিন্ন কারণে তারল্য পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। আগে ২০টিরও বেশি ব্যাংকের ঋণ আমানত অনুপাতের (এডিআর) সীমা অতিক্রম করেছিল। এখন সেই তালিকায় রয়েছে ১০টিরও কম ব্যাংক। তবে এখনো ব্যাংক খাতে আমানতের প্রবৃদ্ধির চেয়ে ঋণপ্রবৃদ্ধি অনেক বেশি। গত জুনে আমানত প্রবৃদ্ধি ছিল ৯ দশমিক ৯৪ শতাংশ ও ঋণে প্রবৃদ্ধি ছিল ১১ দশমিক ৫৬ শতাংশ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, গত জুন শেষে খেলাপি ঋণ বেড়ে হয়েছে ১ লাখ ১২ হাজার ৪২৫ কোটি টাকা, যা বিতরণ করা মোট ঋণের ১১ দশমিক ৬৯ শতাংশ। এর মধ্যে জানুয়ারি-জুন—এ ছয় মাসেই বেড়েছে ১৮ হাজার ৫১৪ কোটি টাকা। এর সঙ্গে অবলোপন করা ঋণ যোগ করলে খেলাপি ঋণ দেড় লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে। তথ্য অনযুয়ায়ী, ব্যাংক খাতে আমানত বেশি বেড়েছে বেসরকারি ব্যাংকগুলোতে। গত অর্থবছর এসব ব্যাংকে ৯৫ হাজার ২৭৮ কোটি টাকার আমানত বেড়ে মোট সাত লাখ ৯৬ হাজার ১৩৫ কোটি টাকা হয়েছে। এর মধ্যে শেষ তিন মাসে বেড়েছে ৪৬ হাজার ৭৫৬ কোটি টাকা। এক বছরে সরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে ১৪ হাজার ৭১৫ কোটি টাকার আমানত বেড়ে তিন লাখ ৯৯৯ কোটি টাকা হয়েছে।

বিশেষায়িত দুই ব্যাংকে মাত্র এক হাজার ৯৩৭ কোটি টাকা বেড়ে হয়েছে ৩০ হাজার ৫৮ কোটি টাকা। আর বিদেশি ব্যাংকগুলোতে ৯ হাজার ৭৩৮ কোটি টাকা বেড়ে ৫৪ হাজার ১৪৭ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। সব মিলিয়ে জুন পর্যন্ত এক বছরে ব্যাংকগুলোর আমানত বেড়েছে ১১ দশমিক ৪৮ শতাংশ। আর ঋণ প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১২ দশমিক ৩৮ শতাংশ। তিন মাস আগে ১০ দশমিক ৯৬ শতাংশ আমানত প্রবৃদ্ধির বিপরীতে ঋণ প্রবৃদ্ধি ছিল ১৩ দশমিক ১৫ শতাংশ। শেষ দিকে আমানত বেশি আসার কারণে ঋণ ও আমানত প্রবৃদ্ধি কাছাকাছি।

প্রকাশিত : ৮ অক্টোবর ২০১৯, ০৭:৩০ পি. এম.

০৮/১০/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: