২৬ জানুয়ারী ২০২০, ১৩ মাঘ ১৪২৬, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

তিতাসের ভ্রাম্যমাণ আদালত : ৫কিমি. অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন

প্রকাশিত : ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:১১ পি. এম.
তিতাসের ভ্রাম্যমাণ আদালত : ৫কিমি. অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥ গাজীপুরের শ্রীপুরে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ রবিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে প্রায় ৫কিলোমিটার দীর্ঘ অবৈধ গ্যাস লাইন ও অর্ধশতাধিক বাড়ির অবৈধ আবাসিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে। এসময় ওই এলাকা থেকে বিভিন্ন ব্যাসার্ধের পাইপ, রাইজার ও অবৈধ সংযোগে ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়। গাজীপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাতেমাতুজ জহুরা’র নেতৃত্বে বিভিন্ন স্পটে দিনব্যাপি ওই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়।

গাজীপুর তিতাস গ্যাসের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী অজিত চন্দ্র দেব জানান, গাজীপুরে শ্রীপুরের কেওয়া এলাকায় একটি প্রভাবশালী মহলের যোগসাজসে অবৈধ লাইন সংযোগ দিয়ে বিভিন্ন বাসা বাড়ীতে দীর্ঘদিন ধরে গ্যাস ব্যবহার করা হচ্ছে। এ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গাজীপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাতেমাতুজ জহুরা’র নেতৃত্বে ও গাজীপুর (জোবিঅ-গাজীপুর) এর উদ্যোগে রবিবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সেখানে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালিত হয়। এসময় কেওয়া এলাকার ৩(তিন) টি ষ্পটে অভিযান চালিয়ে প্রায় ৫হাজার মিটার দীর্ঘ অবৈধ লাইন বিচ্ছিন্ন করা হয়। অভিযানকালে প্রায় দেড়হাজার মিটার দীর্ঘ পাইপসহ বিভিন্ন বাসা বাড়ী থেকে বেশ কিছু চুলা, রাইজার এবং অবৈধ সংযোগে ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়। অভিযান পরিচালনার খবর পেয়ে অবৈধ গ্যাস ব্যবহার কারীরা পালিয়ে যায়।

অভিযানকালে গাজীপুর তিতাস গ্যাসের ব্যবস্থাপক (জোবিঅ-গাজীপুর) প্রকৌশলী অজিত চন্দ্র দেব, উপব্যবস্থাপক প্রকৌ. আব্দুল আলিম রাসেল, প্রকৌ. শবিউল আওয়াল ও প্রকৌ. আবু সুফিয়ান, সহকারী প্রকৌশলী মির্জা শাহনেওয়াজ লতিফ, সহকারী ব্যবস্থাপক (কারিগরী) মোঃ রেজাউল হক, উপসহকারী প্রকৌ. মোঃ সাবিনুর রহমান, আনোয়ার হোসেন, আসাদুল্লাহ কায়সারসহ তিতাস গ্যাস ও প্রশাসনের প্রমূখ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রকৌশলী অজিত চন্দ্র দেব আরো জানান, তিতাস গ্যাস অফিসের কোন অনুমোদন না নিয়ে স্থানীয় প্রভাবশালীরা বিভিন্ন লোকজনের কাছ থেকে ৩০ থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে রাতের অন্ধকারে এসব বাসা বাড়ীতে অবৈধভাবে সংযোগ প্রদান করে। প্রতারনার কৌশল হিসেবে প্রতিটি গ্রাহকের কাছ থেকে ছবি, ভোটার আইডি কার্ড ও জমির দলিল সংগ্রহ করে এসব অবৈধ লাইন বৈধ করার প্রতিশ্রুতি দেয় ওই প্রতারক মহলটি। এর আগেও আরো দু’বার একই এলাকায় অভিযান চালিয়ে অবৈধ গ্যাস লাইন ও সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। যারা অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ গ্রহণ করেছেন এবং সহযোগিতা করেছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। গাজীপুর জেলা প্রশাসনের সহায়তায় নিয়মিতভাবে অবৈধ গ্যাস সংযোগ উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

প্রকাশিত : ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:১১ পি. এম.

২৯/০৯/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: