২২ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

সিনেট থেকে অব্যাহতি চেয়েছেন শোভন, রাব্বানীর ক্ষমা প্রার্থনা

প্রকাশিত : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯
  • ছাত্রলীগের নতুন নেতৃত্বের যাত্রা শুরু

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার ॥ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি চেয়ে উপাচার্যকে চিঠি দিয়েছেন ছাত্রলীগের বিদায়ী সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

সোমবার সকাল ১১টায় ধানম-ির ৩২ নম্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান নতুন সভাপতি ও সেক্রেটারি। এ সময় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা উপস্থিত ছিলেন। পরবর্তীতে ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা, ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ ইউনিটের নেতারাও জয়- লেখকের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। কেন্দ্রীয় কমিটিতে পদপ্রাপ্ত বিতর্কিতদের বহিষ্কার ও ত্যাগী কর্মীদের পদায়নের দাবিতে আন্দোলনকারী ছাত্র নেতারাও শীর্ষ দুই নেতাকে সঙ্গে নিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, দীর্ঘদিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোর কমিটি ঘোষণা করা হয়নি। এই হলগুলো ছাত্রলীগের শক্তির আধার। আমরা দু’জন আজ থেকে দায়িত্ব নিয়েছি মাত্র। হল কমিটিতে যাচাই-বাছাইয়ের কিছু বিষয় আছে। শীঘ্রই ছাত্রলীগের হল কমিটি ঘোষণার ব্যবস্থা করা হবে।

ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, দলে অনুপ্রবেশ ঠেকাতে কমিটি গঠন করে যাচাই-বাছাইয়ের মধ্য দিয়ে নেতা নির্বাচন করা হবে। কর্মী যে কেউ হতে পারে তবে নেতা বানানোর ক্ষেত্রে আমরা কমিটি গঠন করে যাচাই-বাছাই শেষে পদায়ন করব। ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শোভনকে ঢাবির সিনেট সদস্য ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে ডাকসুর জিএস এবং সিনেট থেকে অপসারণের বিষয়ে লেখক বলেন, ছাত্রলীগ ও ডাকসু ভিন্ন। প্রশাসনের সিদ্ধান্ত প্রশাসন নেবে।

ঢাবি সিনেট থেকে শোভনের পদত্যাগ ॥ সোমবার বিকেল সাড়ে চারটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটের সদস্য পদ থেকে ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর পদত্যাগপত্র দেন তিনি। তার পক্ষে পদত্যাগপত্র জমা দেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দফতর সম্পাদক আহসান হাবিব, ডাকসুর সদস্য রফিকুল ইসলাম এবং ছাত্রলীগ নেতা ফেরদৌস আল মাহমুদ পলাশ।

এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক সিনেট অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয় গত ২৬ জুন। এতে পাঁচজন ছাত্র প্রতিনিধির মধ্যে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস সিনেট সদস্য হিসেবে মনোনীত হন। বাকি তিনজন হলেন- ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নূর, জিএস গোলাম রাব্বানী এবং সদস্য তিলোত্তমা শিকদার।

অনুতপ্ত হয়ে গোলাম রাব্বানীর ক্ষমা প্রার্থনা ॥ ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সভাপতি গোলাম রাব্বানী তার ভেরিফাইড ফেসবুক ওয়ালে লিখেন, মমতাময়ী নেত্রী, আপনার মনে কষ্ট দিয়েছি, আমি অনুতপ্ত, ক্ষমাপ্রার্থী। প্রিয় অগ্রজ ও অনুজ, আপনাদের প্রত্যাশা-প্রাপ্তির পুরো মেলবন্ধন ঘটাতে পারিনি বলে আপনাদের কাছেও ক্ষমাপ্রার্থী।

প্রকাশিত : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

১৭/০৯/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: