২০ জানুয়ারী ২০১৮,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

রাঙ্গাবালীতে প্রধানমন্ত্রীর ব্যানার ছিড়ে ফেলার প্রতিবাদে মানববন্ধন


রাঙ্গাবালীতে প্রধানমন্ত্রীর ব্যানার ছিড়ে ফেলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার, গলাচিপা ॥ পটুয়াখালী জেলার রাঙ্গাবালীতে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে টানানো ব্যানার ও ফেস্টুন ছিড়ে ফেলেছে সন্ত্রাসীরা। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার চতলাখালী বাজারে। এসময় সন্ত্রাসীরা মৌডুবী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দুই শিক্ষককে লাঞ্ছিতসহ প্রধানমন্ত্রী ও সাবেক পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমান তালুকদার এমপিকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে। ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আজ শনিবার মৌডুবী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক ও এলাকাবাসী মানববন্ধন ও প্রতিবাদ মিছিল করেছে।

পুলিশ ও স্কুল কর্তৃপক্ষসহ এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, রাঙ্গাবালী উপজেলার মৌডুবী মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে অতি সম্প্রতি জাতীয়করণ করা হয়েছে। এতে ওই বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ, ছাত্র-ছাত্রী, অভিভাবক ও শিক্ষকমন্ডলীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে উপজেলার বিভিন্ন বাজারে ব্যানার ও ফেস্টুন টানানো হয়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক গাজী মোঃ আইজউদ্দীন ও সহকারী শিক্ষক সুজিত বিশ^াস ছাত্রদের নিয়ে চতলাখালী বাজারে ব্যানার টানাতে যায়। এ সময় ছাত্রদলের সহ সভাপতি ও নব্য আওয়ামী লীগে যোগদানকারী ওমর খান ও বর্তমান ছাত্রদল নেতা বাবু তালুকদারের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী মৌডুবী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র ইকরাম হোসেনকে মারধর এবং শিক্ষকদ্বয়কে লাঞ্ছিত করে। সন্ত্রাসীরা জাতির জনক ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত ব্যানার ছিড়ে ফেলে এবং অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কয়েক নেতা জানান, আওয়ামী লীগ সমর্থিত স্থানীয় এক চেয়ারম্যানের ছত্রচ্ছায়ায় বিএনপির সন্ত্রাসীরা এ জঘন্য ঘটনা ঘটিয়েছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে মৌডুবী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুঃ আলাউদ্দিন খান জানান, এ ঘটনায় রাঙ্গাবালী থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও জেলা পরিষদের সদস্য এ কে সামসুদ্দিন আবু মিয়া জানান, ঘটনাটি ন্যাকারজনক। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত।

রাঙ্গাবালীর অফিসার ইনচার্জ মিলন কৃষ্ণ মিত্র জানান, ঘটনার তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: