২০ জানুয়ারী ২০১৮,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

আমতলীতে পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযান, পাঁচটি ড্রাম চিমনি ইটভাটি ধ্বংস


আমতলীতে পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযান, পাঁচটি ড্রাম চিমনি ইটভাটি ধ্বংস

নিজস্ব সংবাদদাতা, আমতলী,বরগুনা ॥ পরিবেশ অধিদপ্তরের একটি টিম সোমবার অভিযান চালিয়ে আমতলীর পাঁচটি অবৈধ ইটভাটি ভেঙ্গে ফেলেছে। অবৈধ ইটভাটির ধ্বংসাবশেষ অপসারনের জন্য ভাটির মালিকদের পরিবেশ অধিদপ্তরের নির্দেশ।

পরিবেশ অধিদপ্তর সূত্রে জানাগেছে, আমতলী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পরিবেশ অধিদপ্তর, কৃষি বিভাগের ছাড়পত্র ছাড়া ত্রি-ফসলি কৃষি জমিতে অবৈধ ইটভাটি গড়ে তুলে। এ নিয়ে সোমবার দৈনিক জনকন্ঠ পত্রিকায় “আমতলীতে ইটভাটি, হুমকিতে ফসলি জমি” শিরোনামে একটি স্বচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এ প্রতিবেদন নজরে পরে পরিবেশ অধিদপ্তরের লোকজনের। সোমবার উপজেলার মহিষডাঙ্গা এলাকায় এমসিকে ও এমএমসি ব্রিকস, চালিতাবুনিয়ার এইচএসবি, মধ্য চন্দ্রার এইচবিএস ও পাতাকাটার এইচআরডি ব্রিকস’এ বরিশাল পরিবেশ অধিদপ্তরের একটি টিম অভিযান চালায়। এ সময় পরিবেশ অধিদপ্তর, কৃষি বিভাগের ছাড়পত্র ছাড়া কৃষি জমিতে ইটভাটি গড়ার অপরাধে ড্রামচিমনি এ পাঁচটি ইটভাটা ভেঙ্গে ফেলে। এবং অবৈধ ইটভাটি মালিকদের আগামী ২৫ ডিসেম্বরের মধ্যে ভাটির ধ্বংসাবশেষ অপসারন করার নির্দেশ দেয় পরিবেশ অধিদপ্তর কর্তৃপক্ষ। ভাটির মালিকরা যথাসময়ে ধ্বংসাবশেষ অপসারনের লিখিত অঙ্গিকার করেছেন। এদিকে স্থানীয় লোকজন অভিযোগ করেছেন ঝিকঝ্যাক ইটভাটি গুলো কৃষি বিভাগের ছাড়পত্র ছাড়াই গড়ে তুলেছে। এতে কৃষি জমির ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। পরিবেশ অধিদপ্তরের লোকজন ওই সকল ইটভাটিগুলোকে অজ্ঞাত করনে অভিযান পরিচালনা করেনি। তারা ওই ভাটিগুলোতে অভিযান পরিচালনা করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জোড় দাবী জানান।

পরিবেশ অধিদপ্তর বরিশাল অঞ্চলের সহকারী পরিচালক এএইচএম রাশেদ বলেন পাঁচটি অবৈধ ইটভাটিতে অভিযান চালানো হয়েছে। ইটভাটাগুলোর বৈধতা না থাকায় সেগুলোর ড্রামচিমনি ভেঙ্গে ফেলা হয়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: