২০ জানুয়ারী ২০১৮,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সেন্টমার্টিনে ৬ শতাধিক পর্যটক আটকা


সেন্টমার্টিনে ৬ শতাধিক পর্যটক আটকা

অনলাইন ডেস্ক ॥ বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনে ঘুরতে যাওয়া ছয় শতাধিক পর্যটক আটকা পড়েছেন। এছাড়াও নিম্নচাপের প্রভাবে সাগরে ৩নং সতর্কতা সংকেত বজায় থাকায় শনিবার সকালে টেকনাফ থেকে কোনো জাহাজ সেন্টমার্টিন যায়নি। ফলে পূর্ব নির্ধারিত সময়ে সকালে ঘাটে এসে প্রায় দুই হাজারেরও বেশি পর্যটক সেন্টমার্টিন যেতে না পেরে ফিরে গেছেন।

তবে আটকে পড়া পর্যটকরা নিরাপদে আছেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। আটকে পড়া পর্যটকরা শুক্রবার সকালে সেন্টমার্টিনে ভ্রমণে গিয়েছিলেন।

কক্সবাজার আবহাওয়া অধিদফতরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সহকারী আবহাওয়াবিদ উজ্জ্বল কান্তি পাল বলেন, নিম্নচাপটি আরও উত্তর-উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর ও ঘনীভূত হয়ে গভীর নিম্নচাপ আকারে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগরে গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি হচ্ছে। এ কারণে আবহাওয়া অধিদফতর থেকে ৩নং সতর্ক সংকেত দেয়া হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সাগর ও নাফ নদীতে মাছ শিকার ও পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

পর্যটকবাহী জাহাজ কেয়ারি সিন্দাবাদের ব্যবস্থাপক মো. শাহ আলম বলেন, সাগর উত্তাল ও বৈরি আবহাওয়ার জাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে ভ্রমণে আসা প্রায় সাত শতাধিক পর্যটক দ্বীপে রয়েছেন। তারা বিভিন্ন হোটেল-মোটেলে নিরাপদে আছেন। সাগর স্বাভাবিক হয়ে গেলে সেন্টমার্টিনে আটকে পড়া পর্যটকদের ফিরিয়ে আনা হবে।

তিনি আরও বলেন, সতর্কতা সংকেত থাকায় শনিবার দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে নৌরুটে জাহাজ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা ছিল। এ কারণে প্রায় পাঁচ শতাধিক পর্যটক সেন্টমার্টিন যেতে পারেননি। ফলে যাত্রীদের টিকিটের টাকা ফেরত দিতে হয়েছে।

সেন্টমার্টিন ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ জানান, শুক্রবার সন্ধায় হঠাৎ আবহাওয়া বৈরী হওয়ায় শনিবার সকাল থেকে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুটে জাহাজ চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে সেন্টমার্টিনের হাজার খানেক পর্যটক আটকে পড়েছিল। এর মধ্যে শনিবার সকালে ঝুঁকি নিয়ে ট্রলারে করে অনেক পর্যটক টেকনাফ ফিরে গেছেন। এরপর দ্বীপে ৬ শতাধিক পর্যটক আটকা পড়েন। তাদের যেন খাদ্য সংকটসহ কোনো ধরনের অসুবিধা না হয় সে ব্যাপারে খেয়াল রাখা হচ্ছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: