২০ জানুয়ারী ২০১৮,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ক্রেতারা ঝুকছে অনলাইন কেনাটাকায়


ক্রেতারা ঝুকছে অনলাইন কেনাটাকায়

অর্থনৈতিক রিপোর্টার\ স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দেশের প্রযুক্তিগত পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে বাজার ব্যবস্থাপনায়ও এসেছে বৈপ্লবিক পরিবর্তন। যানজট এড়াতে কিংবা সময় বাচাতে অনেকেই তাই কেনাকাটা করছেন অনলাইনে। বর্তমানে ই কমার্সের মাধ্যমে প্রতিবছর ১৫০০ থেকে ১৮০০ কোটি টাকার লেনদেন হলেও কয়েক বছরের মধ্যে তা ৮ থেকে ১০ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে বলে মনে করেন এ খাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা। তারা বলছেন, আগামী দিনের বাজার হবে অনলাইন নির্ভর।

রাজধানীর অন্যতম জনপ্রিয় একটি শপিং সেন্টারলোতে উৎসব ছাড়াও মোটামুটি সব সময়ই ভিড় লেগেই থাকে। এছাড়া রাস্তার যানজট তো আছেই। সব মিলিয়ে মার্কেটে গিয়ে শপিং করাটাই এখন অনেকের কাছে সময় নষ্ট। ব্যস্ত শহরে তাই কেনাকাটার কাজটাও অনেকে সেরে নিতে চান অনলাইনেই। সময়ের সাথে সাথে প্রযুক্তিগত পরিবর্তন যেমন এসেছে তেমনি আমাদের বাজার ব্যবস্থাপনাতেও আসতে শুরু করেছে বৈপ্লবিক পরিবর্তন। এমনকি আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই এ খাতে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন আসবে বলেই মনে করেন এ খাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা।

আলাদিন ডট কমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইকবাল বাহার বলেন, মানুষ আগে দোকানে গিয়ে ঘুরে ঘুরে কেনাকাটা করতে পছন্দ করতেন। তবে এখন পাল্টেছে সেই রুচি। অনেকেই এখন ঝুঁকছেন ই-কমার্সে দিকে।

এই ব্যবসার কিছু বদনামও রয়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, নতুন কিছু বাজারে আসলে তার কিছু নেগেটিভ দিক থাকে। তবে এই খাত সম্পর্কে ভালোভাবে জ্ঞান নিয়ে মাঠে নামলে বহুদূর এগিয়ে যাওয়া সম্ভব।

বেশ কয়েক বছর ধরে দেশে ই কমার্সের সম্প্রসারণ হলেও গত তিন বছরে এ খাতে এসেছে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন। বড় শহরগুলো ছাড়িয়ে অনলাইনে কেনাকাটা এখন সারা দেশব্যাপীই ছড়িয়ে পড়েছে।

ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সভাপতি রাজিব আহমেদ বলেন, এ খাতে এখন শুধু একটা জিনিসই দরকার এবং তা হলো বিনিয়োগ। অন্যদিকে এ খাতে নিয়ন্ত্রণ অতোটা সম্ভব নয় বলে ক্রেতাদের একটু সতর্কভাবে কেনাকাটা করতে হবে।

বর্তমানে এক হাজারের উপরে ই কমার্স সাইট আর ১০ হাজারেরও বেশি ফেসবুক ভিত্তিক সাইট রয়েছে। যা আগামী কয়েক বছরের মধ্যে কয়েকগুণ ছাড়িয়ে যাবে বলেই মনে করেন এ খাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা।

##