১৯ জানুয়ারী ২০১৮,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বিএনপি অগ্নি সন্ত্রাসের দল ॥ খন্দকার মোশারফ হোসেন


বিএনপি  অগ্নি সন্ত্রাসের দল  ॥ খন্দকার মোশারফ হোসেন

স্টাফ রিপোর্টার, সিরাজগঞ্জ ॥ বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার গণতন্ত্র পূণঃপ্রতিষ্ঠার বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নযন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশারফ হোসেন বলেছেন- বন্দুকের নল ঠেকিয়ে যারা ক্ষমতায় আসে, দল গঠন করে তাদের মুখে গণতন্ত্রের কথা মানায় না। বিএনপি একটি অগ্নি সন্ত্রাসের দল, আন্দোলনের নামে তারা মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছে,তারা ক্ষমতায় এলে গনতন্ত্র তো দুরের কথা উন্নয়ন স্থবির হয়ে যাবে। তিনি বুধবার বিকেলে সিরাজগঞ্জে জেরার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশ্বের একজন সাহসী নেত্রী উল্লেখ করে বলেছেন-নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ শুরু করে দুনিয়াকে দেখিয়ে দিয়েছেন এত বড় অর্জন বিশ্বের কোন নেতা করতে পারেন নি। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল বলেও তিনি মন্তব্য করেন। তিনি তার জামাতাকে আগামী নির্বাচনে ভোট দেবার আহবান জানিয়ে সিরাজগঞ্জে ৬ টি আসনেই নৌকার বিজয় নিশ্চিত করার জন্য জনপ্রতিনিধিদের প্রতি আহবান জানান।

এর আগে স্থানীয় সরকারের মন্ত্রী সিরাজগঞ্জ পৌঁছালে তাঁকে বিপুলভাবে সংবর্ধনা দেয়া হয়। সন্ধ্যায় মন্ত্রী তাঁর জামাতা অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না এমপি’র পিতা-মাতার মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

সিরাজগঞ্জ পৌরসভা কার্যালয় প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক জনাব কামরুন নাহার সিদ্দীকা। স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক আবু নূর মোহাম্মাদ শামসুজ্জামানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সিরাজগঞ্জ পৌরসভার মেয়র সৈয়দ আব্দুর রউফ মুক্তা । অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ বিশ্বাস, অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না এমপি, সেলিনা বেগম স্বপ্না এমপি, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের যুগ্নসচিব অমিতাব সরকার, পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহম্মেদ, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন, বেলকুচি উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান সুলতানা রাজিয়া মিলন, জেলা পরিষদের সদস্য নুরুল ইসলাম সজল, সয়দাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান নবীদুল ইসলাম ও চান্দাইকোনা ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলম। তাছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে আব্দুল মজিদ মন্ডল এমপি সহ স্থানীয় সরকারের নির্বাচিত এক হাজার ২ শ ৩১ জন নির্বাচিত প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: