১৮ জানুয়ারী ২০১৮,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ডলারে টালমাটাল মুদ্রাবাজার


ডলারে টালমাটাল মুদ্রাবাজার

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ মুদ্রাবাজারের কিছুতেই অস্থিরতা কমানো যাচ্ছে না। যুক্তরাষ্ট্রের ডলারের বিপরীতে বাংলাদেশের টাকার মান কমছেই। আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে সোমবার প্রতি ডলারের বিনিময় হার ছিল ৮২ টাকা ৩০ পয়সা, যেখানে এক মাস আগে লাগত ৮০ টাকা ৮০ পয়সা, এক বছর আগে খরচ করতে হত ৭৮ টাকা ৭০ পয়সা। সাধারণ ক্রেতা পর্যায়ে ৮২ টাকা ৩০ পয়সা দিয়েও ডলার মিলছে না। ব্যাংকগুলো এর চেয়ে দুই থেকে আড়াই টাকা করে বেশি নিচ্ছে।

গতমাসের শেষ দিকে তা ৮৫ টাকাতেও উঠেছিল। এই পরিস্থিতিতে ঘোষিত বিনিময় হার মেনে না চলায় সোমবার কারণ দর্শানোর জবাব দিয়েছে ২৬টি ব্যাংক। এখন জবাব পর্যালোচনা করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। জবাব সন্তোষজনক না হলে একটি ব্যাংককে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা জরিমানা করতে পারে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা জানান, আমদানি ঋণপত্র নিষ্পত্তি করতে ব্যাংকগুলো ডলারের যে মূল্য দেখিয়েছে, ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে তার চেয়ে ২ থেকে আড়াই টাকা বেশি রাখা হাচ্ছিল। এতে করে বেড়ে গেছে আমদানি ব্যয়। আর ব্যাংকগুলো মুনাফা বাড়াতে ডিসেম্বরের মধ্যেই সব আমদানি নিষ্পত্তি করতে চায়। মূলত বছর শেষে ভালো মুনাফা করতেই তাদের এ প্রবণতা। এদিকে খাদ্য ও অবকাঠামো নির্মাণ পর্যায়ে আমদানি ব্যয়ও হঠাৎ গেছে।

এভাবে প্রকৃত দর গোপন করে মিথ্যা তথ্য দেওয়ায় কেন তাদের জরিমানা করা হবে না- তা জানতে চেয়ে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড, এইচএসবিসি, সিটি ব্যাংক এনএ, কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলনসহ মোট ২৬টি ব্যাংকের কাছে ব্যাখ্যা চেয়ে চিঠি দিয়েছিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক। সোমবার ছিল জবাব দেওয়ার শেষ দিন। সবগুলো ব্যাংকই জবাব দিয়েছে। এখন সেগুলো পর্যালোচনা করা হচ্ছে। যাদের জবাব সন্তোষজনক হবে না তাদের বিরুদ্ধে জরিমানানহ ব্যাংক কোম্পানি আইনের আওতায় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ব্যাংক কোম্পানি আইনের ১০৯ (২) ধারা লঙ্ঘনের দায়ে একটি ব্যাংককে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা জরিমানা করতে পারে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: