১৫ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

কেউ চাইলেই জাপাকে ধ্বংস করতে পারবেনা ॥ হাওলাদার


কেউ চাইলেই জাপাকে ধ্বংস করতে পারবেনা ॥ হাওলাদার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার বলেছেন, শুধু ভ্যানগার্ড নয়, আগামীতে দেশের নেতৃত্ব দিবে জাতীয় পার্টি। কারণ আমাদের দল দেশের মাটি ও মানুষের মনে স্থান করে নিয়েছেন।

শুক্রবার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় যুব সংহতি আয়োজিত এক সভায় তিনি একথা বলেন। কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আলমগীর সিকদার লোটন এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ফকরুল আহসান শাহজাদা এর পরিচালনায় জাতীয় যুব সংহতি কেন্দ্রীয় কমিটি উদ্যোগে অনুষ্ঠিত পরিচিতি ও সাধারণ সভায় বক্তব্য রাখেন- দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা, মীর আবদুস সবুর আসুদ, ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইকবাল হোসেন রাজু, জাতীয় যুব সংহতির প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক এটিএম রফিক।

মহাসচিব বলেন- অভিমান নয়, জাতীয় যুব সংহতি আজ ঐক্যবদ্ধ। জাতীয় যুব সংহতি এগিয়ে যাচ্ছে এবং জাতীয় যুব সংহতি শক্তিশালী করার মাধ্যমে পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এর নেতৃত্বে একটি আধুনিক নতুন বাংলাদেশ দেখতে চায়। যে যেখানে আছো, সেখান থেকে কাজ কর। সাংগঠনিক ভাবে কোন সংশয় দেখা দিলে তা দলের চেয়ারম্যান ও মহাসচিবে সাথে আলোচনা কর। আমাদের পার্টি কি অবস্থায় আছে তা দূর থেকে অনুধাবন করতে পারেন। কেউ চাইলেই এই পার্টিকে ধ্বংস করতে পারবেনা। অনেক চড়াই উতরাই পার হয়ে পার্টি এ অবস্থায় এসেছে।

মহাসচিব আরো বলেন, আমাদের যা অর্জন একমাত্র অবদান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তিনিই একমাত্র ব্যক্তি যিনি পবিত্র মক্কায় গিয়ে সবার জন্য দোয়া করেন। তোমরা এরশাদকে ভালবাসো, জাতীয় পার্টিকে ভালবাস। ক্ষমতার মালিক আল্লাহ। আল্লাহ চাইলেই ১ সেকেন্ডে ক্ষমতায় বসাতে পারেন।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে মহাসচিব বলেন, তোমরা সতর্ক থাক। নির্বাচন যখন আসে তখন অনেক সমালোচনা হয়। ত্যাগের কথা মনে থাকবে, সবকিছু দিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ১ লা জানুয়ারির সমাবেশকে সফল করতে হবে। সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে পার্টির জন্য কাজ করে যাবে বলে আমি দৃঢ় বিশ^াস করি। আমি জানি অনেকে আছেন যারা নিজের পরিবারকে যতটা ভালোবাসেন, তাঁর চেয়ে অনেক বেশি ভালোবাসে দলকে।

জাতীয় যুব সংহতি কেন্দ্রীয় কমিটির পরিচিতি ও সাধারণ সভায় উপস্থিত ছিলেন- আহাদ ইউ চৌধুরী শাহিন, হেলাল উদ্দিন হেলাল, মোঃ শাহজাহান কবির, মোঃ হেলাল উদ্দিন, মিয়া আলমগীর, ফজলুল হক ফজলু, মোঃ দ্বীন ইসলাম শেখ, ডাঃ আবুল কাশেম, রেজাউল করিম, মোতাহের হোসেন চৌধুরী রাশেদ, দেলোয়ার হোসেন মিলন, অ্যাড. আবু তৈয়ব, মোঃ আবুল কাশেম, আব্দুর রাজ্জাক, আলতাফুর রহমান আলতাফ, সুমন আশরাফ, মির্জা ইকবাল, মিজানুর রহমান দুলাল, এমদাদুল হক রুমন, শাহাদাত কবির চৌধুরী, সহিদ হোসেন সেন্টু, হাজী ওমর ফারুক, এম এ হান্নান, সফিকুল ইসলাম দুলাল, শেখ মাহবুবুর রহমান লিটন প্রমুখ।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: