১৭ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বড় বড় রাষ্ট্রে গুম হলে আবার উদ্ধার হয় ॥ বি চৌধুরী


বড় বড় রাষ্ট্রে গুম হলে আবার উদ্ধার হয় ॥ বি চৌধুরী

অনলাইন রিপোর্টার ॥ বড় বড় রাষ্ট্রে গুম হওয়ার যে সংখ্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিয়েছেন, তাঁর হিসাব সঠিক নয়। তিনি যেসব দেশের কথা বলেছেন, সেসব দেশে গুম হলে আবার উদ্ধার হয়। কিন্তু আমাদের দেশে তা হয় না বলে মন্তব্য করেছেন বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী।

আজ শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বাংলাদেশ জনদলের (বিজেডি) প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনাসভায় বদরুদ্দোজা চৌধুরী এ কথা বলেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের অষ্টাদশ অধিবেশনের সমাপনী ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ব্রিটেন-আমেরিকাতেও গুম হচ্ছে। এর হিসাব উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘২০০৯ সালের একটি হিসাবে ব্রিটেনে ২ লাখ ৭৫ হাজার ব্রিটিশ নাগরিক গুম হয়ে গেল। তার মধ্যে ২০ হাজারের কোনো হদিসই পাওয়া গেল না। আমেরিকার অবস্থা আরও ভয়াবহ।’

প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে বি চৌধুরী এ কথা বলেন। বক্তব্যে বিভিন্ন ইস্যুতে সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ করতে পারেন না, দেশ থেকে মাদকদ্রব্য নির্মূল করতে পারেন না, আপনারা কি ধরনের সরকার?

সরকারকে ইঙ্গিত করে প্রশ্ন তুলে বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, মানুষকে সভা করতে দেয় না, নিজেরা বড় বড় সভা করে, এটা কী ধরনের গণতন্ত্র?

বিদ্যুৎ ও অন্যান্য দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির সমালোচনা করেন সাবেক রাষ্ট্রপতি বদরুদ্দোজা চৌধুরী। অষ্টমবারের মতো বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর সপক্ষে যেসব যুক্তি দাঁড় করানো হচ্ছে, সেসবের তথ্য সংগ্রহ করতেও দুর্নীতি হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, ‘চালের দাম ৭০ টাকা, পেঁয়াজের দাম ৮০ টাকা—এটাই কি সোনার বাংলা?’

রোহিঙ্গাদের দেশে ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী যে চুক্তি করে এসেছেন, সেটি ব্যর্থ বলে অভিহিত করেন বি চৌধুরী। তিনি বলেন, চুক্তি অনুসারে কত দিন ধরে রোহিঙ্গাদের ফেরত নেওয়া হবে সেসব কিছুই বলা হয়নি। জাতিসংঘের কোনো প্রতিনিধিকেও রাখা হয়নি। সব সত্য কথা আমাদের জানাতে হবে। প্রকাশ করতে হবে। নইলে বাংলাদেশের মানুষ ছাড়বে না।

সভায় সভাপতিত্ব করেন, জনদলের চেয়ারম্যান এস এম শাহজাহান। আরও বক্তব্য দেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, ন্যাপ (ভাসানীর) মহাসচিব এম গোলাম মোস্তাফা ভুইয়া প্রমুখ।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: