১৭ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

প্রধানমন্ত্রী ও হুইপ আতিককে হুমকি দেয়া গ্রেফতার ১


প্রধানমন্ত্রী ও হুইপ আতিককে হুমকি দেয়া গ্রেফতার ১

নিজস্ব সংবাদদাতা, শেরপুর ॥ ফেসবুকে ফেক আইডিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জাতীয় সংসদের হুইপ আতিউর রহমান আতিককে হুমকিসহ কটূক্তিমূলক স্ট্যাটাস দেওয়ার ঘটনায় শেরপুরের গোয়েন্দা বিভাগ সুলতান মিয়া (২২) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে গ্রেফতারকৃত সুলতানকে আদালতে সোপর্দ করা হলে তার পক্ষে কোন আবেদন না থাকায় চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সাইফুর রহমান তাকে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

সুলতান ঝিনাইগাতী উপজেলার জুলগাঁও গ্রামের জমির উদ্দিনের ছেলে, শেরপুর সরকারি কলেজের ডিগ্রী প্রথম বর্ষের ছাত্র ও স্থানীয়ভাবে জাতীয় পার্টির রাজনীতির সাথে জড়িত। গ্রেফতারকৃত যুবক সুলতান কোন জঙ্গী সংগঠন বা কোন অপরাধচক্রের সাথে জড়িত থাকতে পারে বলেও গোয়েন্দা বিভাগ ধারণা করছে। কোর্ট ইন্সপেক্টর মোঃ বদিউজ্জামান ওই তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, গ্রেফতারকৃত যুবক সুলতান রাষ্ট্রের জন্য হুমকীস্বরূপ। তার পক্ষে কোন আবেদন না থাকায় আদালত তাকে সরাসরি কারাগারে পাঠিয়েছেন।

জেলা গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, আবুল হোসেন নামে এক ফেসবুক আইডি থেকে বেশ কিছুদিন যাবত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেরপুর-১ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য হুইপ আতিউর রহমান আতিককে প্রাণনাশের হুমকীসহ কটূক্তিমূলক স্ট্যাটাস দেওয়া হচ্ছিল। একইসাথে জাতীয় সংসদ ভবন উড়িয়ে দেওয়ার হুমকীও ছিল তার স্ট্যাটাসে। বিষয়টি রাষ্ট্রের জন্য চরম হুমকীমূলক হওয়ায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়।

পরবর্তীতে তাদের নির্দেশনা মোতাবেক ডিবিসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা ও আইন-শৃঙ্খলার দায়িত্বে থাকা দপ্তর তৎপর হয়ে উঠে তাকে শনাক্ত করতে। সেই প্রেক্ষিতে শেরপুর জেলা গোয়েন্দা শাখায় ডায়েরীকরণের মাধ্যমে ওই ফেসবুক ব্যবহারকারীর বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়। এক পর্যায়ে তথ্য প্রযুক্তিগত সহায়তায় বুধবার গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর উপজেলার কোনাবাড়ী ডেলটা এলাকা থেকে ওই ফেসবুক ব্যবহারকারী যুবককে আটক করে ডিবির এসআই মিঞা মোঃ জোবায়ের খালিদ। পরে জিজ্ঞাসাবাদে সে নিজের নাম-ঠিকানা প্রকাশ করলেও ওই ধরনের স্ট্যাটাস ছড়ানোর বিষয়ে কোন সদুত্তর দিতে পারেনি। তাকে প্রাথমিক পর্যায়ে ৫৪ ধারায় আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। তবে তার বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে নিয়মিত মামলা দায়েরের জন্য পুলিশ হেডকোয়ারটার্সে আবেদন করা হয়েছে। অনুমতি পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে জেলা গোয়েন্দা বিভাগের এসআই মিঞা মোঃ জোবায়ের খালিদ বলেন, গ্রেফতারকৃত যুবক সুলতান কোন জঙ্গী সংগঠন বা কোন অপরাধচক্রের সাথে জড়িত থাকতে পারে। তদন্তে আশা করি খুব শীঘ্রই সে সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: