১৫ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

গাজীপুরে স্ত্রীর পরকীয়ায় স্বামীকে হত্যা


গাজীপুরে স্ত্রীর পরকীয়ায় স্বামীকে  হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥ গাজীপুরে স্ত্রীর পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্বামীকে শ্বাসরোধে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতের এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নিহতের স্ত্রী ও স্ত্রীর প্রেমিককে আটক করেছে পুলিশ। নিহতের নাম বুলবুল আলম (২৫)। তিনি দিনাজপুরের পারবতীপুর সদর এলাকার হুমায়ুন কবীরের ছেলে।

আটককৃতরা হলেন নিহতের স্ত্রী দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার দেওয়ালিয়াপাড়া গ্রামের ওয়াহেদ আলীর মেয়ে জয়নব আক্তার (২৪) ও তার কথিত প্রেমিক পাবনার চাঁদমোহর থানার দুলাউড়া গ্রামের তজু সরদারের ছেলে আসাদুল ইসলাম (২৫)। এরা সবাই গার্মেন্টসের কর্মী।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের পশ্চিম মোগড়খাল এলাকায় মোহর উদ্দিনের বাড়িতে স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া থাকে বুলবুল। তারা দুইজনই স্থানীয় একটি পোশাক তৈরি কারখানায় কাজ করেন। কারখানায় কাজের সুবাদে জয়নব আক্তারের সঙ্গে তার সহকর্মী আসাদুল ইসলামের পরিচয় ও প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। কিন্তু তাদের দুইজনের মধ্যে বাধ সাধে জয়নবের স্বামী বুলবুল আলম।

তাদের গোপন সম্পর্কের বিষয়টি বুলবুল জেনে গেলে তার স্ত্রীকে বাধা সৃষ্টি করে। এনিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে তাদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া বিবাদ চলে আসছিল। এর জের ধরে গত মঙ্গলবার রাতে নিজ বাসায় গলায় রশি পেচিয়ে শ্বাসরোধ করে বুলবুলকে হত্যা করে জয়নব ও তার প্রেমিক আসাদ। পরে বিষয়টিকে ভিন্নখাতে নেওয়ার জন্য লাশটি গাজীপুর রেল জংশন ষ্টেশন এলাকায় নিয়ে যায়।

এসময় স্থানীয়দের প্রশ্নের জবাবে অসুস্থ্য স্বামীকে দিনাজপুর নিয়ে যাচ্ছে বলে জয়নব জানায়। বিষয়টি আশপাশের লোকজনের সন্দেহ হলে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে জয়দেবপুর থানা পুলিশ বুলবুলকে উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। নিহতের গলায় কালো দাগ থেকে হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত হলে পুলিশ তার স্ত্রী জয়নবকে আটক করে। পরে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে জয়নব হত্যার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে। তার দেয়া তথ্যমতে পুলিশ জয়নবের কথিত প্রেমিক আসাদুলকে আটক করে।

জয়দেবপুর থানার এসআই আনোয়ার হোসেন জানান, এঘটনায় বুধবার নিহতের বড় ভাই আবুল হোসেন বাদি হয়ে জয়দেবপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: