১৪ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

৯ বছর জীবন্মৃত থেকে চলে গেলেন ভারতের কংগ্রেস নেতা প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সী


৯ বছর জীবন্মৃত থেকে চলে গেলেন ভারতের কংগ্রেস নেতা প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সী

বিডিনিউজ ॥ ৯ বছর জীবন্মৃত থাকার পর ভারতের প্রবীণ কংগ্রেস নেতা ও কয়েকবারের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সী ৭২ বছর বয়সে সোমবার দুপুরে মারা গেছেন। নয়াদিল্লীর এ্যাপোলো হাসপাতালে দুপুর বারোটা ১০ মিনিটে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার পাশে ছিলেন স্ত্রী দীপা দাসমুন্সী ও ছেলে। প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সী ২০০৮ সালে স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে কোমায় ছিলেন। স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গ থেকে তাকে নয়াদিল্লীর এইমস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও তিনি আর সুস্থ হয়ে উঠতে পারেননি। পরে তাকে এইমস থেকে এ্যাপোলো হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন তিনি মারা গেলেন। হাসপাতালের পক্ষ থেকে এক প্রেস বিবৃতিতে প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সীর মৃত্যু সংবাদ জানানো হয়েছে। বলা হয়েছে, মাসখানেক ধরে তার অবস্থার অবনতি হয়েছিল। সেটি আর কাটিয়ে উঠতে পারেননি তিনি। তার মৃত্যুতে কংগ্রেস গভীর শোক প্রকাশ করে বলেছে, প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সীর মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত। তার বিভিন্ন অবদানের জন্য, বিশেষত ভারতীয় ফুটবলে তার অবদানের জন্য তিনি স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। ইন্দিরা গান্ধীর অত্যন্ত আস্থাভাজন প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সীর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী এক শোক বার্তায় বলেন, তার মৃত্যুতে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল । ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী গভীর শোক প্রকাশ করেন। মমতা ব্যানার্জী দাসমুন্সীর মৃত্যুতে দুপুর দুটো থেকে সব সরকারী অফিস ছুটি ঘোষণা করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শোক ॥ বাসস জানায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রখ্যাত কংগ্রেস নেতা প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী তাকে বাংলাদেশের একজন ভাল বন্ধু হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি সোমবার এক শোকবার্তায় বলেন, ১৯৭১ সালে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের একজন তরুণ নেতা হিসেবে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। তার মৃত্যুতে বাংলাদেশ একজন ভাল বন্ধু হারাল। প্রধানমন্ত্রী তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানান।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: