১৭ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বরিশালে মুক্তিযোদ্ধাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ


বরিশালে মুক্তিযোদ্ধাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ ছাগলে সবজি ক্ষেত বিনষ্ট করার জেরধরে আওয়ামীলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় এলাকাবাসী হামলাকারী মুক্তিযোদ্ধা ও তার স্ত্রীকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোর্পদ করেছেন। এ ঘটনায় রবিবার রাতে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি জেলার গৌরনদী উপজেলার আধুনা গ্রামের।

হামলায় আহত হয়ে শেবাচিম হাসপাতালে শষ্যাশয়ী সরিকল ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন (৫০) জানান, শনিবার দুপুরে তার একটি ছাগলে প্রতিবেশী মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহিমের বেগুন ক্ষেত বিনষ্ট করে। এ ঘটনায় রহিম ছাগলটি তার বাড়িতে ধরে এনে বেঁধে রাখেন। ওই ছাগল আনতে যাওয়ায় রহিম তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। পরবর্তীতে আব্দুর রহিমের একটি ছাগল দেলোয়ারের ক্ষেত বিনষ্ট করায় ওইদিন সন্ধায় ছাগলের একটি শিং ভেঙ্গে দেয় দেলোয়ার। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। রাত সাড়ে সাতটার দিকে দেলোয়ার হোসেন বাড়ি থেকে বের হলে পথিমধ্যে ওৎপেতে থাকা আব্দুর রহিম ধারালো দা দিয়ে পিছন থেকে তার গলায় কোপ দিয়ে মারাত্মক জখম করে। এতে তার (দেলোয়ার) গলার এক তৃতীয়াংশ কেটে যায়।

এসময় দেলোয়ারের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহিম হাওলাদার (৬৮) ও তার স্ত্রী মমতাজ বেগমকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে থানা পুলিশের কাছে সোর্পদ করেন। অপরদিকে ধারালো দায়ের আঘাতে রক্তাক্ত জখম হওয়া আওয়ামীলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেনকে প্রথমে গৌরনদী ও পরবর্তীতে মুমূর্ষ অবস্থায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করেন।

গৌরনদী মডেল থানার ওসি মনিরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় রবিবার রাতে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহিম হাওলাদারকে গৌরনদী উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে সোমবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: