১৩ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

‘বাংলা ভাষা ও নজরুলের কবিতার অনুরাগী আমি’


‘বাংলা ভাষা ও নজরুলের কবিতার অনুরাগী আমি’

মনোয়ার হোসেন ॥ ঢাকা লিট ফেস্টে অংশ নিয়েছেন ভারতের সমকালীন লেখক জেরি পিন্টো। এই কবি, সাহিত্যিক ও শিক্ষকের সঙ্গে কথা হয় উৎসবের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার। জনকণ্ঠের প্রতিনিধিনিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে উঠে এসেছে তার সাহিত্য ও রাজনীতি ভাবনাসহ নানা বিষয়। বলেছেন বাংলা কবিতার প্রতি তার ভালবাসার কথা। পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো সেই আলাপচারিতার কিছু অংশ। রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে কথা হয় ভারতের এই খ্যাতিমান কবি-লেখক ও সাংবাদিকের সঙ্গে। রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আশ্রয় দেয়ার প্রশংসা করে জেরি পিন্টো বলেন, ইসলামের ঐতিহ্য অনুযায়ী কেউ যদি বিতাড়িত হয়ে আশ্রয় প্রার্থনা করে তবে তাকে আশ্রয় দিতে হবে। শুধু ইসলাম নয়, সব ধর্মই একই কথা বলে, এটাই সত্য। ইসলামেও এটা চিরন্তন সত্য। সেই সত্যের আলোয় ইসলামী ঐতিহ্য মেনে বাংলাদেশ আশ্রয় দিয়েছে রোহিঙ্গাদের। অন্যরা সমবেদনা কিংবা প্রতিবাদ জানালেও রোহিঙ্গাদের আশ্রয়ের বিষয়ে তেমন কিছু করেনি। এক্ষেত্রে বাংলাদেশের ভূমিকা অতুলনীয়।

এ প্রসঙ্গে জেরি পিন্টো বলেন, মিয়ানমারকে অবশ্যই তার দেশের নাগরিক রোহিঙ্গাদের স্বীকৃতি দেয়া উচিত। রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের নাগরিক এবং সেটাই তাদের দেশ। নিজের দেশ ছেড়ে কেউ অন্য দেশে থাকতে চায় না। তারা নিশ্চয়ই নিজের দেশেই ফেরতে যেতে চায়।

বিশ^ রাজনীতির অস্থিতিশীলতার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, সারাবিশ^ এক অসহিষ্ণু অবস্থার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। এটি খুবই দুঃখজনক। এ কারণে বিশ^ব্যাপী নানামুখী সঙ্কট বিরাজ করছে।

বাংলা সাহিত্যের প্রতি অনুরাগ প্রকাশ করে এই লেখক বলেন, আমি একটু একটু করে বাংলা শিখছি। এই ভাষার প্রতি আমার ভাল লাগা আছে। প্রাথমিকভাবে বাংলা সাহিত্যকে জানতে অনুবাদের বই পড়ছি। বাংলাদেশের জাতীয় কবির প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করে বলেন, আমি নজরুলের কবিতার অনুরাগী এবং সে কারণেই অল্প অল্প করে বাংলা শিখছি। নজরুলের কবিতা কিংবা সাহিত্য আমি বাংলাতেই পড়তে চাই। এর বাইরে আমি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও জীবনানন্দের কবিতার ব্যাপারেও আগ্রহী।

জেরি পিন্টোর বহুল আলোচিত ও পুরস্কারপ্রাপ্ত বই ‘হেলেন : দ্য লাইফ এ্যান্ড টাইমস অব এ বলিউড এইচ-বম্ব’। এই বইতে বলিউডের আলোচিত অভিনেত্রী হেলেনের জীবন কাহিনী তুলে ধরেছেন লেখক। হেলেনকে নিয়ে লেখার আগ্রহ প্রসঙ্গে লেখক বলেন, মূলত ভারত একটি সংখ্যাগরিষ্ঠ হিন্দু সম্প্রদায়ভিত্তিক রাষ্ট্র। সেখানে খ্রীস্টান হেলেন বলিউডে উঠে এসেছেন অনন্য মহিমায়। তিনি কখনও মিস চিনচিন চু, কখনও বাবুল আবার কখনও হয়েছেন বাঞ্জারান। চরিত্রের ভেতর স্পর্শ করেছেন নানা ধর্ম এবং ঘটিয়েছেন সম্প্রীতির সম্মিলন। হেলেন আসলে একের ভিতর অনেক চরিত্র। তার এই বহুমাত্রিকতাই আমাকে আকৃষ্ট করেছে তাকে নিয়ে লেখতে।

নিজের লেখকসত্তা প্রসঙ্গে জেরি পিন্টো বলেন, একজন লেখকে অবশ্যই সমাজ-সচেতন হতে হবে। সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতা ছাড়া ভাল লেখক হওয়া যায় নয়। একজন প্রকৃত লেখকের পক্ষে সমাজ ও রাষ্ট্রকে উপেক্ষা করে ভাল কিছু পাঠককে উপহার দেয়া কঠিন।

ঢাকা লিট ফেস্টের প্রতি নিজের মুগ্ধতার প্রকাশ করে এই লেখক বলেন, সাহিত্যের এ সম্মেলনকে আমার কাছে নতুন চিন্তা মনে হয়েছে। দারুণভাবে উপভোগ করছি উৎসবটি। প্রথম দিন বৃষ্টির ভেতরেও সাহিত্যপ্রেমী মানুষদের সমাগম আমাকে বিস্মিত করেছে। এর মাধ্যমে প্রমাণিত হয়, এ দেশের মানুষ শিল্প-সাহিত্যকে অনুভব করে ও ভালবাসে। এর বাইরে এ দেশের মানুষের আন্তরিকতার জুড়ি মেলা ভার। একইভাবে অন্যকে আপ্যায়নেও তারা উদার।

জেরি পিন্টো ভারতের খ্যাতিমান লেখক, কবি ও শিক্ষক। ‘হেলেন : দ্য লাইফ এ্যান্ড টাইমস অব এ বলিউড এইচ-বম্ব’ বইটির জন্য তিনি ভারতের জাতি চলচ্চিত্র পুরস্কারের ৫৪তম আসরে সিনেমার সেরা গ্রন্থ ক্যাটাগরিতে পুরস্কার লাভ করেছেন। এই লেখকের প্রথম উপন্যাস ‘দেম এ্যান্ড দ্য বিগ হুম’ জয় করেছে অনেকগুলো পুরস্কার। এগুলো হলো ক্রসওয়ার্ড এ্যাওয়ার্ড ফর ফিকশন, হিন্দু লিট ফর লাইফ এ্যাওয়ার্ড ফিকশন, সাহিত্য একাডেমির এ্যাওয়ার্ড ও উইন্ডহাম-চ্যামবল প্রাইজ। মুম্বাইয়ের সোফিয়া পলিটেকনিক কলেজে তিনি গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে শিক্ষকতা করছেন। পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকা-ের সঙ্গে নিয়োজিত রেখেছেন নিজেকে।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: