১৪ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

সিদ্ধিরগঞ্জে অপহরণকৃত শিশুকে উদ্ধার, গ্রেফতার ১


সিদ্ধিরগঞ্জে অপহরণকৃত  শিশুকে উদ্ধার, গ্রেফতার ১

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ ॥ নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদী সিআইখোলা এলাকা থেকে ফারিয়া আক্তার নামে এক বছরের শিশুকে অপহরণের ২০ ঘন্টা পর গাজীপুর থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ দেলোয়ার হোসেন (২৩) নামে এক অপহরণকারীকে গ্রেফতার করেছে। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ১০টায় গাজীপুর জেলার সদর থানার নবপাড়া এলাকা থেকে উদ্ধার করে শিশুটিকে বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় নিয়ে আসে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল- ক) মোঃ শরফুদ্দীন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান, বুধবার বেলা ৩টায় ফারিয়া আক্তারকে ফারিয়ার বাবা শাহআলমের পাইনাদীর সিআইখোলার টেইলার্সের দোকান থেকে তার কর্মচারী দেলোয়ার হোসেন অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে অপহৃতের বাবার মোবাইল ফোনে অপহরণকারী ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

এ ঘটনায় শিশুটির বাবা শাহ আলম বুধবার রাতেই সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পরে পুলিশ মোবাইল ট্যাকিং এর মাধ্যমে সারারাত অপহরণকারীর অবস্থান নিশ্চিত হয়ে পুলিশ অভিযান চালায়। এ সময় অপহরণকারীর দেয়া একটি বিকাশ নম্বরে ফারিয়ার বাবা ১০ হাজার টাকা পাঠায়। ওই বিকাশ এজেন্টের কাছ থেকে দেলোয়ার টাকা নিতে আসলে ওঁৎ পেতে থাকা সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ অপহরণকারী দেলোয়ারকে গ্রেফতার করে। পরে অপহরণকারীর কথামতো তার বোন ফরিদা আক্তারের ৬ তলার বাসা থেকে পুলিশ শিশু ফারিয়াকে উদ্ধার করে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশ উদ্ধারকৃত ফারিয়াকে উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে তার বাবা-মায়ের কাছে হস্তান্তর করে। এ সময় শিশু ফারিয়াকে ফিরে পেয়ে তার মা-বাবা আবেগাপ্লুত হয়ে পড়ে। ফারিয়ার বাবা শাহ আলম জানান, দেলোয়ার আমার টেইলার্সের দোকানের কর্মচারী। পূর্বেও আমার টেইলার্সের দোকানে একবার কাজ করে চলে গিয়েছিল। ওই সময় লোকজনের সঙ্গে ঝামেলা সৃষ্টি করলে আমি তাকে সহায়তা করিনি। তাকে আমার দোকান থেকে বের করে দেই। পরে কয়েক মাস পরে আবারও দেলোয়ার আমার দোকানে কাজ চাইতে আসলে আমি তাকে সহজ সরলভাবে কাজ করার সুযোগ দেই।

কিন্তু দেলোয়ার পূর্বের আক্রোশের জের ধরে বৃহস্পতিবার বেলা ৩টায় আমার কন্যা সন্তানকে অপহরণ করে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। পরে পুলিশের কাছে অভিযোগ দিলে পুলিশ আমার শিশু কন্যাকে গাজীপুর থকে উদ্ধার করে। ফারিয়ার মা সোনালী আক্তার জানান, আমার শিশু কন্যাকে পেয়ে ফিরে পেয়ে আমি যেন পৃথিবী হাতে পেয়েছি। আমি আসামীর শাস্তি দাবি করছি।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: