২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ঠাকুরগাঁওয়ে কিশোরকে জবাই করে হত্যা


নিজস্ব সংবাদদাতা, ঠাকুরগাঁও, ১০ নবেম্বর ॥ সদর উপজেলার নিমবাড়ি এলাকায় অন্তর (১৫) নামের এক কিশোরকে জবাই করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।শুক্রবার সন্ধ্যায় নিমবাড়ি এলাকার একটি লিচু বাগান থেকে গলাকাটা অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। নিহত অন্তর নিমবাড়ি মুন্সিপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।সদর থানার ওসি আব্দল লতিফ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন তদন্ত শুরু হয়েছে। কি কারণে এ হত্যা কান্ড হয়েছে তাৎক্ষণি বলা যাচ্ছে না।

নীলফামারীতে সহকারী কর্মকর্তার লাশ উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার নীলফামারী থেকে জানান, বড় ছেলে জিসানের আনুষ্ঠানিকভাবে দশম জন্মদিন পালন শেষে মা রূপনা আক্তার দুলালী (৩০) আত্মহত্যা করেছে। শুক্রবার বেলা ১১টায় নীলফামারী শহরের ডাকবাংলো নীল প্রতিভাপাড়া মহল্লার নিজবাস ভবনের বাথরুমের ভেতর গলায় ওড়না দিয়ে তার ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া যায়। মরদেহ উদ্ধারের পর জেলা মর্গে লাশের ময়নাতদন্ত করা হয়।

রূপনা আক্তার দুলালী সদর উপজেলা পঞ্চপুকুর ইউনিয়নের পরিবার পরিকল্পনা অফিসের সহকারী কর্মকর্তা পদে কর্মরত ছিলেন। তার স্বামী নীলফামারী শহরের ছমির উদ্দিন স্কুল এ্যান্ড কলেজের গণিত বিষয়ের শিক্ষক জাহিদুল ইসলাম। তাদের সংসারে জিসান (১০) ও রাফি (১) নামের দুইটি ছেলে সন্তান রয়েছে। রূপনা আক্তার পঞ্চপুকুর ইউনিয়নের হাজীপাড়া জামতলা গ্রামের হাজী মোখলেছুর রহমান মাস্টারের মেয়ে। এদিকে স্ত্রীর আত্মহত্যার ঘটনার পর স্বামী জাহিদুল ইসলাম তার বড় ছেলে জিসান সহ নিখোঁজ রয়েছে। তার ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

বিকেল ৪টা পর্যন্ত তার ও তার বড় ছেলের কোন সন্ধান মেলেনি। মরদেহ উদ্ধারের সময় ছোট একবছরের রাফি ঘুমিয়ে ছিল বাড়ির ঘরে। অপরদিকে দুপুরে এলাকাজুড়ে গুজন ছড়িয়ে পড়ে স্ত্রীর আত্মহত্যায় শিক্ষক স্বামী নিজেও বিষপানে আত্মহত্যা করেছে। তবে এ ঘটনার কোন সত্যতা খুঁজে পায়নি পুলিশ। এলাকাবাসী জানায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বড় ছেলের দশ বছরপূর্তির ঘটা করে জন্মদিন পালন করে। এরপর এমন কি হলো তিনি আত্মহত্যা করলেন। পারিবারিক সূত্র মতে নিজেদের আত্মীয়তার সূত্রেই পরিবারের অভিভাবকরা ১১ বছর আগে তাদের বিয়ে দিয়েছিল। সংসার জীবনে তারা সুখী ছিল।

বাগমারায় বৃদ্ধ

স্টাফ রিপোর্টার রাজশাহী থেকে জানান, বাগমারা উপজেলার বড়বিহানালী ইউনিয়নের গুইয়াপাড়া গ্রামের একটি পুকুর থেকে বস্তাবন্দী অবস্থায় আনিছার রহমান (৬৫) নামের এক বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে লাশটি ভেসে উঠলে স্থানীয়দের খবরে বাগমারা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে। প্রাথমিকভাবে পুলিশের ধারণা, আনিছারকে হত্যার পর বস্তাবন্দী করে মরদেহ পুকুরের মধ্যে ফেলে গেছে দুর্বৃত্তরা।

বাগমারা থানার ওসি নাছিম আহমেদ জানান, নিহত আনিছার রহমান তবলীগ জামাতের কর্মী ছিলেন। এছাড়া ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। শুক্রবার ফজরের নামাজ পড়তে বাড়ি থেকে বের হন আনিছার রহমান। এর পর থেকে পরিবারের সদস্যরা তাকে আর খুঁজে পাচ্ছিলেন না। দুপুরে জুমার নামাজের পর বাড়ির পাশের পুকুরে একটি বস্তা ভেসে ওঠে। পরে স্থানীয়রা থানায় খবর দেন। বিকেলে পুলিশ বস্তাবন্দী অবস্থায় আনিছার রহমানের লাশ উদ্ধার করে।

দিনাজপুরে এক ব্যক্তি

স্টাফ রিপোর্টার দিনাজপুর থেকে জানান, বীরগঞ্জ উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের লস্করপুর গ্রামে রাস্তার ধার থেকে শুক্রবার সকাল ১০টায় সুনীল রায় (৪৪) নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এলাকাবাসী লাশ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দিলে, এসআই দুলাল হোসেন লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট করেন।

এসআই দুলাল জানান, লাশের শরীরের বিভিন্ন অংশ আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। পিটিয়ে হত্যা করে লাশ রাস্তার ধারে ফেলে দেয়া হয় বলে তিনি জানান। নিহত ব্যক্তি সুনীল রায় বোচাগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম সলকাই গ্রামের খগেন্দ্র নাথ রায়ের পুত্র।