২৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

মহান ক্ষমা

প্রকাশিত : ১১ নভেম্বর ২০১৭

যুক্তরাষ্ট্রে আড়াই বছর আগের একটি হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হচ্ছিল। আদালত মামলার একমাত্র আসামিকে সাজা দেয় ৩১ বছরের কারাদণ্ড। সবাইকে অবাক করে দিয়ে নিহত ছেলের বাবা হত্যাকারীকে ক্ষমা করে দিলেন আর বুকে জড়িয়ে নিলেন ছেলের হত্যাকারীকে। আবেগে কেঁদেই ফেলেন ওই যুবক। মঙ্গলবার আমেরিকার কেনটাকি অঙ্গরাজ্যের লেক্সিংটন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

২০১৫ সালের এপ্রিলে সালাহউদ্দিন জিতমোউদকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। সালাহউদ্দিন কেনটাকির লেক্সিংটন এলাকায় একটি এ্যাপার্টমেন্টে পিৎসা দিতে গিয়েছিলেন। পরে এ্যাপার্টমেন্টের পাশেই খালি জায়গা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। তিনি পিৎসা সরবরাহকারীর গাড়ির চালক ছিলেন।

এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়। তবে আদালত কেবল রেলফোর্ডকেই দোষী সাব্যস্ত করে।

মামলার রায়ের পরই নিহতের বাবা ড. আবদুল মুনিম সোমবাত জিতমোউদ আসামি আলেক্সজান্ডার রেলফোর্ডকে ক্ষমা করে দেন। ড. আবদুল-মুনিম জানান, ইসলামের সুমহান আদর্শ থেকেই তিনি এই কাজ করেছেন। আদালত রেফফোর্ডকে হত্যা ও ডাকাতির দায়ে কারাদণ্ড দেয়। আবদুল মুনিম বলেন, সালাহউদ্দিন ও তার মায়ের পক্ষ থেকে আমি তোমাকে ক্ষমা করে দিলাম। তিনি জানান, ‘এই দুই বছর সাত মাস আমাদের জন্য অনেক খারাপ সময় গেছে।

রেলফোর্ড বলেন, ‘আমার আসলে বলার কিছুই নেই। ওই দিন যা হয়েছে তার জন্য আমি সত্যি দুঃখিত। আপনার ছেলেকে আমি ফিরিয়ে দিতে পারব না। -ওয়েবসাইট অবলম্বনে।

প্রকাশিত : ১১ নভেম্বর ২০১৭

১১/১১/২০১৭ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: