২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সংবিধান অনুযায়ী ক্ষমতাসীন সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে ॥ কাদের


নিজস্ব সংবাদদাতা, জামালপুর, ১০ নবেম্বর ॥ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সংবিধান অনুযায়ী বর্তমান ক্ষমতাসীন এই সরকারের অধীনেই আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য স্বাধীন নির্বাচন কমিশনকে সহায়তা দিয়ে সহায়ক সরকারের দায়িত্ব পালন করবে এ সরকার। আর বিএনপি তত্ত্বাবধায়ক নাকি সহায়ক সরকার চায়, তা তারা নিজেরাই জানে না। এ নিয়ে তাদের নিজেদের মধ্যেই গোলমাল বেধে গেছে। এ নিয়ে তারা চরম দ্বিধায় পড়েছে। বর্তমান সরকারের জনপ্রিয়তায় তারা ঈর্ষান্বিত হয়ে নিজেদের লুটপাট, দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহার ঢাকতে মিথ্যাচারে লিপ্ত রয়েছে। মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের শুক্রবার সকালে জামালপুরে প্রায় ৬১ কোটি টাকার প্রকল্পের তিনটি সেতু নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে মেলান্দহ উপজেলার হাজরাবাড়ী মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। ওই পথসভায় বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইনজীবী মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ বক্তব্য রাখেন। মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, জিয়ার সরকার বঙ্গবন্ধুর খুনীদের ক্ষমা করে দিয়ে বিভিন্ন দূতাবাসে চাকরি দিয়ে পুরস্কৃত করেছিল। তাদের তিনি পুনর্বাসিত করে গেছেন। সেদিন খালেদা জিয়া আদালতে গিয়ে বললেন, উনি নাকি আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমা করে দিয়েছেন। কি হাস্যকর। এই খালেদা জিয়াই শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ১২টি মামলা করেছিলেন। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়ে শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করেছিলেন। কিন্তু কোন ষড়যন্ত্রই শেখ হাসিনাকে ঠেকাতে পারেনি। দেশ বাঁচাতে, দেশের মানুষকে বাঁচাতে শেখ হাসিনা তার নিজের বিবেক ছাড়া কারও কাছেই মাথানত করেন না। কোনদিনও করবেন না। নূর হোসেন দিবস প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, আজ ১০ নবেম্বর শহীদ নূর হোসেন দিবস। নূর হোসেন ছিল স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনের তিন জোটের রূপরেখার সম্পদ-সৈনিক। আর বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়ার আগে নূর হোসেন দিবস পালন করে। কিন্তু এখন তারা পালন করে না। এখন আওয়ামী লীগ তা পালন করে। এটাই হলো ইতিহাস। সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, জনপ্রিয়তার তকমা নিয়ে আপনাদের ঘরে বসে থাকলে চলবে না। তরুণ আর নারীরাই এবার নির্বাচনের অন্যতম হাতিয়ার হবে। আপনারা ঘরে ঘরে যান। বারবার নয়, দেশের উন্নয়ন-অগ্রযাত্রার ধারবাহিকতা রক্ষায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আরেকবার ক্ষমতায় যেতে চাই। আপনারা প্রস্তুত থাকুন। পরে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জামালপুর-মাদারগঞ্জ সড়কে দাঁতভাঙ্গা, ঝাড়কাটা এবং কালুম-লের দহ এলাকায় তিনটি সেতুর নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। সেতুমন্ত্রী দুপুরে জুমার নামাজের পর মাদারগঞ্জ উপজেলার বালিজুড়ি বাজারে বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের মা মোসাম্মত নূরুন্নাহার বেগমের চেহলাম অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: