২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি রাশিয়া-আর্জেন্টিনা


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ ও বিশ্বকাপ বাছাই ফুটবলের প্লে-অফ খেলায় ব্যস্ত এখন বিশ্বের সেরা ফুটবল খেলিয়ে দেশগুলো। যে দেশগুলো ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকেট নিশ্চিত করে ফেলেছে তারা ঝালিয়ে নিচ্ছে প্রীতি ম্যাচে। শুক্রবার যেমন মাঠে নেমেছিল ব্রাজিল, জার্মানি, ইংল্যান্ডের মতো পরাশক্তিরা। আজ মাঠে নামছে আরেক পরাশক্তি ও জনপ্রিয় দল আর্জেন্টিনা। মস্কোয় স্বাগতিক রাশিয়ার বিরুদ্ধে খেলবে লিওনেল মেসির দল। ম্যাচটি মাঠে গড়াবে আজ বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায়।

আজ রাতে প্রীতি ম্যাচে মাঠে নামছে স্পেনও। সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা আতিথ্য দেবে কোস্টারিকাকে। অপর দুই ম্যাচে লড়বে কাতার-চেক প্রজাতন্ত্র ও মেসিডোনিয়া-নরওয়ে। পরবর্তী বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে রাশিয়ায়। এ কারণে এখন বেশিরভাগ দেশই চেষ্টা করছে রাশিয়ায় প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে। তবে এখন রাশিয়ায় বেশ শীতের প্রকোপ। সেখানে তীব্র শীতে রীতিমতো জবুথবু অবস্থায় দেখা গেছে মেসি, এ্যাগুয়েরো, ডি মারিয়াদের। রাশিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচের তিনদিন পর আরেকটি প্রীতি ম্যাচে আর্জেন্টিনা মুখোমুখি হবে নাইজিরিয়ার। রাশিয়ায় এখন কনকনে শীত। তাপমাত্রা মাত্র ৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস। এমন অবস্থা যে চুলের স্টাইল দেখে বুঝে নিতে হচ্ছে কে কোন খেলোয়াড়। কারণ এ ছাড়া চেনার কোন উপায়ই নেই আর্জেন্টাইন তারকাদের। তাদের পুরো শরীরই ঢাকা গরম কাপড়ে। এমনকি মুখ গলাতেও জড়ানো আছে একটা মোটা মাফলার।

রাশিয়ার তীব্র শীত মোকাবেলা করতে নিজেদের এভাবেই সাজাতে হয়েছে মেসিদের। রাশিয়ায় গিয়ে কোন ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা এবারই প্রথম হবে মেসির। এর আগে ২০০৯ সালে রাশিয়ায় একটি ম্যাচ খেলার জন্য গেলেও শেষ পর্যন্ত মাঠে নামতে পারেননি আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। ইনজুরির কারণে বসে থাকতে হয়েছিল দর্শক হয়ে। ২০১৮ সালে পরবর্তী ফুটবল বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে রাশিয়ায়। এবারই হয়তো বহু কাক্সিক্ষত শিরোপাটি জয়ের শেষ চেষ্টা করবেন এ সময়ের অন্যতম সেরা ফুটবলার। তার আগে এই প্রীতি ম্যাচগুলোর মধ্য দিয়ে নিজেদের ঝালিয়ে নিতে চাচ্ছেন আর্জেন্টাইন তারকারা। এই ম্যাচের দল থেকে ছিটকে গেছেন আর্জেন্টিনার মাউরো ইকার্ডি। এই ম্যাচের আগে মেসিকে নিয়ে অন্যরকম একটা সমালোচনা হয়েছে। গুজব রটেছে, মেসি নাকি আর্জেন্টিনা দলে কারা খেলবেন সেটা নির্ধারণ করেন। এই সমালোচনার জবাব দিতেও দেরি করেননি গত বিশ্বকাপের সেরা ফুটবলার।

এক সাক্ষাতকারে মেসি বলেন, আমার বন্ধুরাই শুধু খেলে জাতীয় দলে। অসম্মান করতেই এমন কথা বলা হয়। খুব খারাপ লাগে যখন শুনি জাতীয় দলের খেলোয়াড় নির্বাচন করি আমি। ডি মারিয়া, হিগুয়াইন, মাশ্চেরানোদের মতো বিশ্বমানের খেলোয়াড়দের জাতীয় দলে অন্তর্ভুক্তি নিয়ে প্রশ্ন তোলে। এসব শুনলে হাসি পায়। আমার বন্ধু বলেই ওরা খেলার সুযোগ পায়, এসব কথা বলা মানে খেলোয়াড়দের অসম্মান করা। আর্জেন্টাইন অধিনায়ক বলেন, এসব আসলে মিথ্যা অভিযোগ। এতদিনে তা প্রমাণিত।

সর্বশেষ ওরা ইকার্ডিকে নিয়ে বলেছিল, আমি চাই না সে জাতীয় দলে সুযোগ পাক। কিন্তু জাতীয় দলে আমি কখনই কোন খেলোয়াড়ের অন্তর্ভুক্তি কিংবা ছাঁটাইয়ের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দিই না। এটা আমার কাজ নয়। ব্রাজিলে বিশ্বকাপের শিরোপা হাতছাড়া হলেও এবার কাজে লাগাতে চান। এ প্রসঙ্গে পাঁচবারের ফিফা সেরা তারকা বলেন, আসলে জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের চেয়ে আমার পরিবারের জন্য শিরোপা জেতা দরকার। কেননা ব্যর্থ হলে তাদের ভুগতে হয় সবচেয়ে বেশি।