২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বিশ্বকাপের পথে ক্রোয়েশিয়া ও সুইজারল্যান্ড


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সরাসরি বিশ্বকাপের টিকেট পায়নি ক্রোয়েশিয়া ও সুইজারল্যান্ড। বিশ্বকাপ বাছাই ফুটবলে ইউরোপিয়ান অঞ্চলে নিজেদের গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হতে না পারার জন্যই এমন হয়েছে। যে কারণে দেশ দু’টিকে খেলতে হচ্ছে প্লে-অফ ম্যাচ। যার প্রথম লেগের ম্যাচ তারা খেলেছে বৃহস্পতিবার রাতে। তাতে নিজ নিজ ম্যাচ জিতে ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে এক পা দিয়ে রেখেছে সুইজারল্যান্ড ও ক্রোয়েশিয়া।

নিজেদের মাঠে ক্রোয়েশিয়া ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে গ্রিসকে। আরেক ম্যাচে স্বাগতিক নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডকে ১-০ গোলে হারিয়েছে অতিথি সুইজারল্যান্ড। প্রথম লেগের এই জয়ে বিশ্বকাপে খেলা অনেকটাই নিশ্চিত করেছে দেশ দু’টি। গ্রিসের বিরুদ্ধে ফেবারিট হিসেবেই মাঠে নামে ক্রোয়েশিয়া। কিন্তু তারকা ফুটবলার মারিও মানদুকিচ না থাকায় কিছুটা হলেও দুশ্চিন্তায় ছিল তারা। কিন্তু তাতে কী! বার্সিলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদের দুই তারকা মিডফিল্ডার ইভান রাকিটিচ ও লুকা মডরিচ তো ছিলেন। এ দুই তারকা ফুটবলারের জাদুতে ইউরোপিয়ান অঞ্চলের প্লে-অফের প্রথম লেগের ম্যাচে গ্রিসকে উড়িয়ে দিয়েছে ক্রোয়েশিয়া। ক্রোয়েশিয়ার রাজধানী জাগরেবে ম্যাচের ১৩ মিনিটেই এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। ডি বক্সে নিকোলা কেলিনিচকে ফাউল করেন গ্রিসের গোলরক্ষক কারনাজিস। পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পট কিক থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন মডরিচ। মিনিট পাঁচেক পরেই গোল ব্যবধানটা দ্বিগুণ করেন কেলিনিচ। ইভান স্ট্রিনিচের পাসে বল পেয়ে গোল করেন কেলিনিচ। প্রথমার্ধেই আরও এক গোল করে জয় প্রায় নিশ্চিত করে ফেলে স্বাগতিকরা। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে হেডে দলের তৃতীয় গোলটা করেন ইভান পেরিসিচ। অবশ্য এর আগে ৩০ মিনিটে একটি গোল শোধ করে সফরকারী গ্রিস। বিরতির পর ম্যাচের শেষ গোলটি করে ক্রোয়েশিয়া। সিমে ভ্রাসালিকোর দারুণভাবে পরাস্ত করেন গ্রিসের রক্ষণভাগকে। সামনে থাকা ক্রমারিজ বল পেয়ে জালে জড়িয়ে দেন। তখন ম্যাচের বয়স ৪৯ মিনিট। বাকি সময়ে আর কোন গোল হয়নি ম্যাচে। ১৯৮৬ সালে সর্বশেষ বিশ্বকাপে খেলেছিল নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড। এবার একটা সম্ভাবনা জেগেছিল দেশটির। তবে বাছাইপর্বে জার্মানির মতো শক্ত প্রতিপক্ষ থাকায় গ্রুপ পর্ব পার হয়ে সরাসরি বিশ্বকাপে ওঠা হয়নি। গ্রুপ পর্বে রানার্সআপ হয়ে প্লে-অফে জায়গা করে নেয় দেশটি। তাতে প্রথমেই বড় ধাক্কা খেয়েছে আয়ারল্যান্ড।

ঘরের মাঠে সুইজারল্যান্ডের ওপর শুরু থেকেই চাপ সৃষ্টি করে খেলতে থাকে স্বাগতিক নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড। দারুণ খেললেও সুইজারল্যান্ডের রক্ষণভাগ ভাঙ্গতে পারেনি স্বাগতিকরা। প্রথমার্ধে কোনপক্ষই গোল করতে পারেনি। বিরতির পর ডি-বক্সে জারদান শাকিরির নেয়া শট লাগে আয়ারল্যান্ডের মিডফিল্ডার কোরি এভানসের কাঁধে। কিন্তু রেফারির দেন পেনাল্টির নির্দেশ। দারুণ সুযোগ পেয়ে গোল করেন রিকার্ডো রড্রিগুয়েজ। ম্যাচের ৫৮ মিনিটে করা এই গোলেই স্বস্তির জয় পায় সুইসরা। তবে রেফারির পেনাল্টির সিদ্ধান্ত মানতে পারেনি আইরিশ ফুটবলাররা। ম্যাচের বাকি সময় গোল পরিশোধে মরিয়া হয়ে খেললেও গোলের দেখা পায়নি নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড। এই জয়ে টানা চতুর্থবারের মতো বিশ্বকাপে খেলার পথে এক ধাপ এগিয়ে গেছে সুইজারল্যান্ড।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: