২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

এগিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য সবার


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সিলেটপর্ব শেষ। এবার বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) টি২০ পঞ্চম আসরের ঢাকাপর্ব শুরু আজ। রাজশাহী কিংস-রংপুর রাইডার্স এবং ঢাকা ডায়নামাইটস-সিলেট সিক্সার্স ম্যাচ দিয়ে ঢাকার লড়াই যাত্রা করবে। সিলেটপর্বে ৭টি দলই অন্তত একটি পরাজয়ের মুখ দেখেছে। তবে রাজশাহী কিংস দুই ম্যাচ খেলে দুই ম্যাচেই হেরেছে। তারা এবার ঘুরে দাঁড়াতে চায় এমন প্রত্যয়ই জানিয়েছেন তরুণ অফস্পিন অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ। আর নিজেদের মাঠে সিলেট টানা তিন জয়ের পর শেষে হারলেও দলের তরুণ উইকেটরক্ষক নুরুল হাসান সোহান জানিয়েছেন ঢাকাপর্বেও ভালভাবে শুরু করতে চায় তারা। অন্য দুটি দলও নিজেদের পরাজয়ের পেছনে ভুলগুলো শুধরে জয় দিয়েই শুরু করতে চায় ঢাকাপর্ব।

গত আসরের চ্যাম্পিয়ন ঢাকা ডায়নামাইটস এবার বিপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচেই চমকে গিয়েছিল। নবাগত দল সিলেট সিক্সার্সের বিরুদ্ধে বিশাল ব্যবধানে হার দেখে তারা। এ বিষয়ে ডায়নামাইটস কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, ‘আসলে সব ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ চিন্তা করে খেলব। আমরা প্রথম ম্যাচে সিলেট সিক্সার্সের বিরুদ্ধে হেরেছিলাম। আমি সেটাকে বলব পুরোপুরি আত্মসমর্পণ করেছিলাম। আবার কাল (আজ) তাদের বিরুদ্ধে আমরা খেলব।’ অবশ্য দ্বিতীয় ম্যাচেই দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন ঘটে ডায়নামাইটসের। সহজ জয় তুলে নেয় তারা খুলনা টাইটান্সের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে সুজন বলেন, ‘প্রথম ম্যাচের ক্ষেত্রে আমি বলব আসলে নিজেদের খেলাটা দেখাতে পারিনি। ব্যাটিং-বোলিং কিংবা ফিল্ডিং কোনকিছুই ভালভাবে হয়নি। এমনকি আমাদের শরীরী ভাষায়ও যথেষ্ট ঘাটতি ছিল। তবে ইতিবাচক ব্যাপার হচ্ছে আমরা ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই আবার খুব ভালভাবে ফিরে এসেছিলাম ইতিবাচক শরীরী ভাষায়। এখন খেলোয়াড়রা নিজেদের মেলে ধরতে পারছে।’ ডায়নামাইটসের বিরুদ্ধে দারুণ জয়ে শুরু করা সিলেট সিক্সার্স এখন পর্যন্ত আছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। দুরন্ত দলটিকে টানা তিন জয়ের পর চতুর্থ ম্যাচে হারতে হয়েছে খুলনা টাইটান্সের কাছে। এ বিষয়ে সোহান বলেন, ‘সিলেটে আমরা ভাল শুরু করেছিলাম। এখানেও একই লক্ষ্য থাকবে যেন শুরুটা ভাল করতে পারি। টি২০ ম্যাচে যেদিন যারা ভাল খেলবে সেদিনটি তাদের থাকবে। তারাই জিতবে। ঢাকা অবশ্যই শক্তিশালী দল। আমাদের লক্ষ্য থাকবে মাঠে যেন আমাদের সেরাটা দিয়ে খেলতে পারি।’ তবে এবারই প্রথম নিজেদের মাঠের বাইরে খেলতে হবে সিলেটকে। আসল চ্যালেঞ্জটা এখানেই। এ বিষয়ে সোহান বলেন, ‘আমাদের সবচেয়ে বড় প্লাস পয়েন্ট টিম স্পিরিট। লক্ষ্য থাকবে মাঠে যেন শতভাগ টিম স্পিরিট নিয়ে খেলতে পারি। তবে মাঠে ঢোকার দর্শক বা অন্য যে কোন বিষয় নিয়ে মাঠে যাওয়ার পর চিন্তা করার সময় থাকে না।’ গত বিপিএলেও রাজশাহী কিংস পড়ে গিয়েছিল দারুণ সমস্যায়। একের পর এক হেরেছিল তারা। কিন্তু পরবর্তীতে ঘুরে দাঁড়িয়ে শেষ পর্যন্ত ফাইনাল খেলেছিল। এবারও টানা দুই ম্যাচ হেরেছে দলটি। তবে নতুন করে শুরু করতে চায় তারা। এ বিষয়ে দলের অফস্পিন অলরাউন্ডার মিরাজ বলেন, ‘সিলেট পুরোপুরি নতুন ছিল আমাদের কাছে। ওই গ্রাউন্ডে সে রকম আমরা খেলিনি। ওইখানে ব্যাটসম্যানরা সুবিধা পেয়েছে। শিশিরের কারণে বোলিংটা, বিশেষ করে স্পিনারদের সমস্যা হয়েছে। আশাকরি ঢাকায় ভাল হবে। ঢাকা আমাদের চেনা। এ ছাড়া প্রস্তুতিও ভাল হচ্ছে। আশাকরি ঢাকায় ভাল কিছু হবে। আসলে দুইটা হার, বলব যে গত বছরও একই রকম ছিল। এ বছরও তাই হচ্ছে। আমাদের আত্মবিশ্বাস উঁচুতেও আছে। এখনও ১০টা ম্যাচ আছে। আমরা যদি ঠিকভাবে খেলতে পারি তাহলে শেষ চারে যাওয়া যাবে। আপাতত আমাদের দরকার একটা জয়।’ তাদের প্রতিপক্ষ রংপুর রাইডার্স। দারুণ জয়ে শুরুর পরের ম্যাচেই হেরেছিল তারা। দলে আছেন ঘরোয়া আসরে নিয়মিত পারফর্মার শাহরিয়ার নাফীস। তিনি বলেন, ‘দুঃখজনকভাবে আমরা শেষ ম্যাচটা হেরেছি। কিন্তু আমরা দুইটা ম্যাচে সব জায়গায় সবমিলিয়ে ভাল খেলেছি। ইনশাআল্লাহ আগামী ম্যাচে জিতে আমরা আবার জয়ের ধারায় ফিরব।’ তবে ম্যাচের একাদশে ৫ বিদেশী খেলানোর বিষয়টি নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা টুর্নামেন্টের আগে আশাবাদী হয়ে বলেছিলাম যে, কোন সমস্যা হবে না। কিন্তু স্থানীয়দের পারফর্ম করার সুযোগ কিন্তু কম। ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের কথা বলে আপনি যদি পাঁচ বিদেশীকে বেশি সুযোগ দেন আর ভাবেন যে বাংলাদেশ ক্রিকেটের উন্নতি হচ্ছে তাহলে আমি মনে করি এটা ভুল। ব্যাটিংয়ে টপ তিন জায়গায় খেলছে বিদেশী। প্রতিটি দলে ১০ থেকে ১২ ওভার বিদেশীরা করছে। আশা করছি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ব্যাপারটা নিয়ে ভাবছে।’

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: