২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

৫০০ রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশ ১০ ভেলা নিয়ে


৫০০ রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশ ১০ ভেলা নিয়ে

অনলাইন রিপোর্টার ॥ মিয়ানমার সেনাবাহিনীর দমন-পীড়নের মুখে রাখাইন থেকে নাফ নদী পেরিয়ে ১০টি ভেলা নিয়ে আরও পাঁচ শতাধিক রোহিঙ্গা কক্সবাজারের টেকনাফে প্রবেশ করেছে।

শুক্রবার সকালে টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে প্রবেশ করেন তারা।

টেকনাফ-২ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর অধিনায়ক লেফট্যান্টেট কর্নেল এস এম আরিফুল ইসলাম জানান, শুক্রবার সকাল থেকে রোহিঙ্গাদের ১০টি ভেলা মিয়ানমার দিকে এসে টেকনাফের তিনটি পয়েন্ট দিয়ে প্রবেশ করে। প্রতিটি ভেলায় নারী-পুরুষ শিশুসহ ৪০ থেকে ৬০ জন রোহিঙ্গা থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, নিজ দেশে নির্যাতনের শিকার রোহিঙ্গারা নৌকা সংকটের কারণে প্লাস্টিকের জারিকেন, কাঠ, বাঁশ ও দড়ি দিয়ে ৮০০ থেকে ১০০০ বর্গফুটের ভেলা তৈরি করে ঝুঁকি নিয়ে বাংলাদেশে আসছে। গত বুধবার একটি ভেলায় ৫২ জন, বৃহস্পতিবার পৃথক দুটি ভেলায় ১৩২ জন নিরাপদে বাংলাদেশের তীরে ভিড়েছে। হয়তো এটি জানতে পেরেই ভেলার উপর নির্ভরতা বাড়াচ্ছে বিপন্ন রোহিঙ্গারা।প্রচ্ছদ-৩/দেশের খবর

৫০০ রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশ ১০ ভেলা নিয়ে

অনলাইন রিপোর্টার ॥ মিয়ানমার সেনাবাহিনীর দমন-পীড়নের মুখে রাখাইন থেকে নাফ নদী পেরিয়ে ১০টি ভেলা নিয়ে আরও পাঁচ শতাধিক রোহিঙ্গা কক্সবাজারের টেকনাফে প্রবেশ করেছে।

শুক্রবার সকালে টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে প্রবেশ করেন তারা।

টেকনাফ-২ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর অধিনায়ক লেফট্যান্টেট কর্নেল এস এম আরিফুল ইসলাম জানান, শুক্রবার সকাল থেকে রোহিঙ্গাদের ১০টি ভেলা মিয়ানমার দিকে এসে টেকনাফের তিনটি পয়েন্ট দিয়ে প্রবেশ করে। প্রতিটি ভেলায় নারী-পুরুষ শিশুসহ ৪০ থেকে ৬০ জন রোহিঙ্গা থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, নিজ দেশে নির্যাতনের শিকার রোহিঙ্গারা নৌকা সংকটের কারণে প্লাস্টিকের জারিকেন, কাঠ, বাঁশ ও দড়ি দিয়ে ৮০০ থেকে ১০০০ বর্গফুটের ভেলা তৈরি করে ঝুঁকি নিয়ে বাংলাদেশে আসছে। গত বুধবার একটি ভেলায় ৫২ জন, বৃহস্পতিবার পৃথক দুটি ভেলায় ১৩২ জন নিরাপদে বাংলাদেশের তীরে ভিড়েছে। হয়তো এটি জানতে পেরেই ভেলার উপর নির্ভরতা বাড়াচ্ছে বিপন্ন রোহিঙ্গারা।

আরিফুল ইসলাম বলেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রোহিঙ্গারা এভাবে আসায় যেকোনো সময় ভেলা উল্টে দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে। একই সঙ্গে তারা মিয়ানমারের জলসীমা অতিক্রম করে বাংলাদেশে চলে এলেই মানবিক সহায়তার কথা চিন্তা করে বিজিবি তাদের উদ্ধার করে একটি স্থানে জড়ো করে। খাদ্য ও মানবিক সহায়তা দিয়ে তাদের ক্যাম্পে পাঠানো হচ্ছে।

আরিফুল ইসলাম বলেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রোহিঙ্গারা এভাবে আসায় যেকোনো সময় ভেলা উল্টে দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে। একই সঙ্গে তারা মিয়ানমারের জলসীমা অতিক্রম করে বাংলাদেশে চলে এলেই মানবিক সহায়তার কথা চিন্তা করে বিজিবি তাদের উদ্ধার করে একটি স্থানে জড়ো করে। খাদ্য ও মানবিক সহায়তা দিয়ে তাদের ক্যাম্পে পাঠানো হচ্ছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: