২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ডাইনি বিতর্ক ভারতেও তাড়া করছে শ্রীলঙ্কাকে


ডাইনি বিতর্ক ভারতেও তাড়া করছে শ্রীলঙ্কাকে

অনলাইন ডেস্ক ॥ মেয়নি অথবা জাদুবিদ্যা নয়, খেলোয়াড়দের দক্ষতার উপরে নির্ভর করেই ভারতের বিরুদ্ধে খেলতে নামবে শ্রীলঙ্কা।

বৃহস্পতিবার কলকাতার এক পাঁচতারা হোটেলে দলের সাংবাদিক সম্মেলনে ঠিক এমনটাই বললেন শ্রীলঙ্কার ম্যানেজার আসাঙ্কা গুরুসিংহ। তিনি যা-ই বলুন না কেন, ডাইনি বিতর্ক ভারতেও তাড়া করছে শ্রীলঙ্কাকে। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ জেতার পরে ‘ডাইনিবিদ্যাকেই’ কৃতিত্ব দিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দীনেশ চণ্ডীমল। যার পরে শুরু হয়ে যায় বিতর্ক।

সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে টেস্টে ২-০ জিতলেও সীমিত ওভারের খেলায় ০-৮ হেরেছে শ্রীলঙ্কা। ব্যাপারটি নিয়ে চাপে থাকলেও বৃহস্পতিবারের সাংবাদিক সম্মেলনে জেতার কথা মনে করেই, নিজেকে চাপমুক্ত রাখার চেষ্টা করছিলেন চণ্ডীমল।

ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজকে একটি বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবেই দেখছেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক। তাঁর দলও এই চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত। চণ্ডীমল বলেন, ‘‘ভারতে এটা আমার প্রথম টেস্ট সিরিজ। ওরা ভাল দল। কিন্তু আমরাও পাকিস্তানকে হারিয়ে ফিরেছি। আমরাও প্রস্তুত। দারুণ হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আশায় রয়েছি।’’

ভারতীয় দলে রবীন্দ্র জাডেজা ও আর. অশ্বিনের সঙ্গে মোহাম্মদ শামিকে নিয়েও বেশ চিন্তিত কোচ নিক পোথাস। ভারতের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে ০-৩ পরাজয়কে শিক্ষা হিসেবেই দেখছেন তিনি। তাঁর মতে, পাকিস্তানের তুলনায় ভারতীয় টেস্ট দলের ভারসাম্য অনেক মজবুত। তবে বিপক্ষের শক্তির কথা মাথা থেকে উড়িয়ে নিজেদের দক্ষতা নিয়েই ভাবছেন তিনি। পোথাস বলেন, ‘‘ঘরের মাঠে ভারতের বিরুদ্ধে পরাজয় থেকে শিক্ষা নিয়েছি। বিপক্ষের কথা বেশি চিন্তা না করে নিজেদের উন্নতিতেই মনোনিবেশ করছি।’’

শ্রীলঙ্কার ঘরের মাঠে নুয়ান প্রদীপ ছাড়া কোনও বোলারই ভারতকে বিপাকে ফেলতে পারেননি। অথচ তাঁকেই খেলতে নিয়ে আসা হয়নি। শ্রীলঙ্কার নির্বাচকেরা প্রদীপকে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে খেলানোর কথা ভেবেই বিশ্রাম দিচ্ছেন। প্রশ্ন উঠছে তা হলে কি ভারত ছেড়ে বাংলাদেশ সিরিজকেই কি বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে শ্রীলঙ্কা? বলেই এই সিদ্ধান্ত! ম্যানেজার আসাঙ্কা গুরুসিংহের ব্যাখ্যা, ‘‘প্রদীপ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বোলার। কিন্তু চোট প্রবণ বলে ওকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে।’’

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: