২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

স্বামীর অবৈধ সম্পর্কের বিষয়টি স্ত্রী জানলেম স্মার্টফোন থেকে


স্বামীর অবৈধ সম্পর্কের বিষয়টি স্ত্রী জানলেম স্মার্টফোন থেকে

অনলাইন ডেস্ক ॥ বিমানে ওঠার পর বেশ নিশ্চিন্তেই ঘুমিয়ে পড়েছিলেন। হঠাৎই চিৎকার-চেঁচামেচিতে সেই ঘুম ভেঙে গেল। যা দেখলেন তাতে তো চক্ষু চড়কগাছ! স্ত্রীর হাতে ধরা তাঁরই স্মার্টফোন। তত ক্ষণে যা অঘটন হওয়ার হয়ে গিয়েছে। স্মার্টফোন থেকেই স্বামীর অবৈধ সম্পর্কের কথা জেনে গিয়েছেন স্ত্রী। আর তা নিয়েই বেজায় হল্লা জুড়েছেন তিনি। ঘরোয়া ঝগড়ার জেরে শেষমেশ বিমান জরুরি অবতরণ করিয়ে তাঁদের চেন্নাইয়ে নামিয়ে দিতে বাধ্য হলেন বিমানকর্মীরা। রবিবার সকালে এমন নাটকীয় ঘটনার সাক্ষী থাকলেন কাতার এয়ারওয়েজের একটি বিমানের যাত্রীরা।

ঠিক কী ঘটেছিল?

দোহা থেকে বালির দিকে রওনা দিয়েছিল কাতার এয়ারওয়েজের ফ্লাইট কিউ-আর৯৬২। ওই বিমানে উঠেছিলেন এক ইরানি দম্পতি। সঙ্গে ছিল তাঁদের সন্তান। বিমানযাত্রীদের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এক শীর্ষ কর্তা জানিয়েছেন, টেকঅফের ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই ঘুমিয়ে পড়েন ওই ব্যক্তি। সেই সুযোগে স্ত্রী তাঁর স্মার্টফোন আনলক করে ফেলেন। কী ভাবে? ওই শীর্ষ কর্তাটি বলেন, “স্মার্টফোনের ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারে ঘুমন্ত স্বামীর আঙুলের ছাপ দিয়ে তা আনলক করেন ওই মহিলা।” এর পর স্মার্টফোন ঘেঁটে যা দেখেন তাতে তাঁর চোখ কপালে ওঠার জোগাড়। অন্য এক মহিলার সঙ্গে বেশ ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে তাঁর স্বামীর। আর তাতেই তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠেন তিনি। চিলচিৎকার জুড়ে দেন। ঘুম ভেঙে যায় ওই ব্যক্তির। এর পর মাঝ-আকাশেই শুরু হয় স্বামী-স্ত্রীর তুমুল ঝগড়া। তাঁদের নিরস্ত করার শত চেষ্টা করেও কোনও ফল হয়নি। বেগতিক দেখে জরুরি অবতরণের সিদ্ধান্ত নেন পাইলট। চেন্নাই বিমানবন্দরে নামিয়ে দেওয়া হয় তাঁদের।

চেন্নাই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ভারতীয় ভিসা না থাকায় বিপাকে পড়তে হয়েছে ওই দম্পতিকে। বিমানবন্দরেই বসে ছিলেন তাঁরা। শেষমেশ তাঁদের কুয়ালা লামপুরগামী একটি বিমানে তুলে দেওয়া হয়। সেখান থেকেই দোহার দিকে যাবেন তাঁরা।

ওই দম্পতির পরিচয় গোপন রাখলেও কাতার এয়ারওয়েজ কর্তৃক্ষের অভিযোগ, ওই মহিলা মদ্যপ অবস্থায় বিমানে উঠেছিলেন। তবে কেন তা চেকিংয়ের সময় ধরা পড়ল না, তার সদুত্তর দিতে পারেননি তাঁরা।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা