১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবে ৩ লাখ টাকার বেশি স্থিতি রাখা যাবে না


মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবে ৩ লাখ টাকার বেশি স্থিতি রাখা যাবে না

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ এখন থেকে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের (এমএফএস) গ্রাহকরা তাদের ব্যক্তিগত মোবাইল হিসাবে ৩ লাখ টাকার বেশি স্থিতি রাখতে পারবেন না। বর্তমানে যে সকল গ্রাহকের মোবাইল হিসাবে ৩ লাখ টাকার বেশি স্থিতি রয়েছে তাদের ডিসেম্বরের মধ্যে এই সীমায় নামিয়ে আনতে হবে। সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেম বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত সার্কুলার জারি করা হয়েছে; যা মোবাইল সেবা প্রদানকারি ব্যাংকও তার সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে। মূলত মোবাইল ফিনান্সিাল সার্ভিসেস (এমএফএস) এর অপব্যবহার রোধ এবং শৃংখলা ও যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিতে নতুন এ সীমারোপ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

সার্কুলারে বলা হয়েছে, আগামী জানুয়ারি থেকে একজন মোবাইল গ্রাহক তার ব্যক্তিগত হিসাবে সর্বোচ্চ ৩ লাখ টাকার স্থিতি রাখতে পারবেন। যে সকল ব্যক্তির মোবাইল হিসাবে ৩ লাখ টাকার অধিক স্থিতি রয়েছে, সে সকল হিসাবের স্থিতি ডিসেম্বরের মধ্যে উপর্যুক্ত সীমায় নামিয়ে আনতে হবে। এক্ষেত্রে হিসাবধারীর এমএফএস হিসাবের সাথে সংযুক্ত ব্যাংক হিসাবে অর্থ স্থানান্তরের মাধ্যমেও তা করা যাবে বলে নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়েছে।

এর আগে চলতি বছরের ১১ জানুয়ারি মোবাইল ফিনান্সিাল সার্ভিসেস (এমএফএস) এর অপব্যবহার রোধে বেশকিছু নির্দেশনা দিয়ে সার্কুলার জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এতে বলা হয়, একজন ব্যক্তি যেকোনো মোবাইল ব্যাংকিং সেবায় একটি মাত্র হিসাব রাখতে পারবেন। যাদের একাধিক মোবাইল ব্যাংকিং হিসাব চলমান রয়েছে, তা দ্রুত বন্ধ করে দিতে হবে। কোনো মোবাইল হিসাবে ৫ হাজার টাকা বা তার তদুর্ধ্ব নগদ অর্থ জমা বা উত্তোলনে গ্রাহককে পরিচয়পত্র বা স্মার্টকার্ডের ফটোকপি প্রদর্শন করতে হবে, যা এজেন্ট তার রেজিস্ট্রারে লিপিবদ্ধ করবেন। এমনকি রেজিস্ট্রারে গ্রাহকের স্বাক্ষর বা টিপসই সংরক্ষণের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। কোনো এজেন্ট এই ধরনের কার্যাদি যথাযথভাবে সম্পন্ন না করলে বা গাফিলতির প্রমাণ পাওয়া গেলে এজেন্টশিপ বাতিল করারও নির্দেশ দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এছাড়া ঐ নির্দেশনায় মোবাইল ব্যাংকিং সেবায় দৈনিক ও মাসিক লেনদেনের সীমা আরও কমিয়ে নির্ধারণ করা হয়। ঐ নির্দেশনা অনুসারে, একজন মোবাইল ব্যাংকিংয়ের গ্রাহক একবারে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা উত্তোলন করতে পারবেন। পূর্বে এই হার ছিল ২৫ হাজার টাকা। এখন থেকে গ্রাহক দৈনিক দুই বার এবং মাসে ১০ বার এই সেবা নিতে পারবেন, যা আগে ছিল দৈনিক তিন বার এবং মাসে ১০ বার। একইসঙ্গে দৈনিক জমার সীমাও পরিবর্তন করা হয়েছে। এতে এখন থেকে দিনে সর্বোচ্চ দুই বারে ১৫ হাজার টাকা করে পাঠানো যাবে। যা মাসে সর্বমোট ২০ বারে এক লাখ টাকার বেশি হতে পারবে না। আগে দিনে পাঁচ বারে ২৫ হাজার টাকা এবং মাসে সবর্বোচ্চ ২০ বারে দেড় লাখ টাকা করে জমা করা যেতো। এছাড়া একটি মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবে টাকা জমার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ঐ হিসাব থেকে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকার বেশি নগদ উত্তোলন করা যাবে না। নতুন সার্কুলারে এসব নির্দেশনা অপরিবর্তিত থাকবে বলেও জানানো হয়েছে।