১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

পুঁজিবাজারে সূচকের সঙ্গে লেনদেন বেড়েছে


পুঁজিবাজারে সূচকের সঙ্গে লেনদেন বেড়েছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সোমবার মূল্য সূচকের উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন ডিএসইতে আগের দিনের তুলনায় লেনদেনও বেড়েছে। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও একই চিত্রে লেনদেন শেষ হয়েছে। উভয় বাজারেই দিনটিতে প্রকৌশল খাতের নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানি ওয়াইম্যাক্স ইলেক্ট্রোডের লেনদেন ও দরবৃদ্ধির শীর্ষে অবস্থান করেছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, সোমবার ডিএসইতে ৬৭১ কোটি ৯৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের তুলনায় ১৩৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকা বেশি। আগের দিন এ বাজারে ৫৩৮ কোটি ৪৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল। এর মধ্যে নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানিটির ৬৮ কোটি টাকা লেনদেন করে ডিএসইতে সার্বিক লেনদেনের ১০ ভাগ দখল করেছে।

বাজার বিশ্লেষকদের মতে, স্বল্প মূলধনী কোম্পানিটির মাত্র ১ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার আইপিওতে বাজারে এসেছে। তাই নতুন কোম্পানিটির প্রতি বিশেষ আগ্রহ দেখা গেছে। যদিও প্রথম দিনেই বিপদজ্জনক অবস্থানে পৌছছে শেয়ারটি। শুধুমাত্র স্বল্প মূলধনী বলে এক শ্রেণীর ক্রেতা শেয়ারটির প্রতি বিশেষ আগ্রহ দেখিয়েছে। কিন্তু কোনভাবেই শেয়ারটির দর এতো উঠতে পারে না। কারণ এই ধরনের কোম্পানি বিডি ওয়েল্ডিংয়ের বাজার দর ২০ টাকার কাছাকাছি। তাই শুধুমাত্র স্বল্প সময়ের লাভের জন্য এক শ্রেণীর বিনিয়োগকারী শেয়ারটিতে আগ্রহ দেখিয়েছে। এটি কোনভাবেই স্বাভাবিক আচরণ নয়।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সোমবারে আগের দিনের পতনের ধারাবাহিকতা থেকে বের করে এনেছে ব্যাংক খাতটি। এই খাতের মোট মিউচুয়াল ট্রাস্ট, ওয়ান ব্যাংক, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক ও ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংক ছাড়া সবকটিরই দর বেড়েছে। শুধু তাই নয়, সার্বিক লেনদেনের সেরা কোম্পানিদের তালিকাতেও বেশিরভাগ ব্যাংক জায়গা করে নিয়েছে। বিশেষ করে যেসব ব্যাংকের মুনাফা আগের তুলনায় বেশি বেড়েছে, সেই ব্যাংকগুলোতে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বেশি ছিল।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ৩৩২টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৮টির, কমেছে ১৭০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৪টির শেয়ার দর।

সকালে সূচকের নেতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর পরও ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্য সূচক ৩১ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ১০৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ৩২৫ পয়েন্টে। আর ডিএস৩০ সূচক ১০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২ হাজার ২০৮ পয়েন্টে।

ডিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ওয়াইম্যাক্স ইলেক্ট্রোড, সিটি ব্যাংক, ইফাদ অটো, ব্র্যাক ব্যাংক, লঙ্কাবাংলা ফাইনান্স, বিবিএস কেবল, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, স্কয়ার ফার্মা, গ্রামীন ফোন ও এ´িম ব্যাংক।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : স্টাইলক্রাফট, ইবিএল, মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্স, ফারইস্ট ইসলামী লাইফ, বিডি থাই, ডাচ বাংলা ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংক, সিটি ব্যাংক, ডেসকো ও ড্রাগন সোয়েটার।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : সাভার রিফ্যাক্টরীজ, আইটিসি, সিমটেক্স, ফার্স্ট ফাইনান্স, এমবে ফার্মা, মুন্নু স্টাফলার, অলটেক্স, মডার্ন ডাইং, মডার্ন ডাইং, শ্যামপুর সুগার ও ওরিয়ন ইনফিউশন।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৫৩ কোটি ৫৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৩২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৮ হাজার ৯৫৫ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪০টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০৫টির, কমেছে ১১২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টি কোম্পানির শেয়ার।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ওয়াইম্যাক্স ইলেক্ট্রোড, সিটি ব্যাংক, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, কেয়া কসমেটিক, ফনিক্স ফাইনান্স, ন্যাশনাল ব্যাংক, স্কয়ার ফার্মা, লঙ্কাবাংলা ফাইনান্স, প্রিমিয়ার ব্যাংক ও আমরা নেটওয়ার্ক।