১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মহাদেবপুরে জুয়েল হত্যার জট সাত দিনেও খুলতে পারেনি পুলিশ


মহাদেবপুরে জুয়েল হত্যার জট সাত দিনেও খুলতে পারেনি পুলিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ ॥ নওগাঁর মহাদেবপুরে ঠিকাদার পুত্র ফিরোজ আলম জুয়েল সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হয়েছে, নাকি তাকে কেউ হত্যা করেছে, বিষয়টির জট গত সাত দিনেও খুলতে পারেনি পুলিশ।

উপজেলার বজুরকান্তপুর গ্রামের বিশিষ্ট ঠিকাদার মৃত হারুন-অর-রশিদের ৫ ছেলের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ ছেলে ফিরোজ আলম জুয়েলের (৩২) মৃতদেহ মহাদেবপুর-পত্নীতলা আঞ্চলিক মহাসড়কের সুজাইল মোড় নামক স্থান থেকে গত ১৬ অক্টোবর সকালে উদ্ধার করে পুলিশ । এ সময় জুয়েলের মুখমন্ডল এবং হাত-পায়ে ক্ষতসহ তার মোটর বাইকের ভেঙ্গে পড়া পাদানী ও লুকিং গ্লাস ঘটনা স্থল থেকে উদ্ধার করলেও এ পর্যন্ত মোটরবাইকটির খোঁজ পায়নি পুলিশ। ওইদিন জুয়েল সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হয়েছে এমন তথ্য পুলিশ মিডিয়া কর্মীদের দিলেও জুয়েলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে মর্মে তার মেজ ভাই মোশারফ হোসেন বাদী হয়ে ওইদিনই থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

উপজেলার বজুরকান্তপুর গ্রামের তফু উদ্দীনের ছেলে যুবলীগ কর্মী মিজানুর রহমান (৩২), পত্নীতলা উপজেলার সিধুয়া গ্রামের এনামুল হকের ছেলে আশরাফুল ইসলাম (৩৮) ও মাহমুদপুর গ্রামের আঃ জব্বারের ছেলে খোকনের (৩৩) নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত নামা ৫/৬ জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন তিনি। ঘটনার দিন যুবলীগ কর্মী মিজানুর রহমানকে থানায় ডেকে নিয়ে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। একই দিন এ মামলার সন্দেহ ভাজন আসামী পত্নীতলা উপজেলার নজিপুর পৌরসভার হরিরামনগর এলাকায় ভাড়াবাসা থেকে জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার মালিদহ গ্রামের শ্রী অজিত চন্দ্র দাসের ছেলে অসিত কুমার দাশ(৩২) ও চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী উপজেলার কাঠাখালি গ্রামের সুধীর নাথের ছেলে দিপু নাথকে (৩৩) পুলিশ গ্রেফতার করে। এ ৩ জনকে গত ১৮ অক্টোবর নওগাঁর একটি আদালত থেকে ৩ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ । শনিবার (২১ অক্টোবর) এ মামলায় এজাহারভুক্ত আসামী আশরাফুল ইসলামকে তার বাড়ি থেকে মহাদেবপুর থানা পুলিশ গ্রেফতার করে। ওইদিন (২১ অক্টোবর) রিমান্ডে থাকা ওই তিন আসামীসহ আশরাফুল ইসলামকে নওগাঁ আদালতে সোপর্দ করা হয়। এদিকে রিমান্ডে থাকা ওই ৩ আসামীর কাছ থেকে এ হত্যাকান্ড সম্পর্কে উল্লেখযোগ্য কোনো তথ্য না পাওয়ার সত্যতা স্বীকার করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই রতন কুমার রায় জানান, নিভিরভাবে জিজ্ঞাসা বাদের জন্য পুনরায় মিজানুর রহমান ও আশরাফুল ইসলামকে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করা হয়েছে। আদালত এ রিমান্ড শুনানির তারিখ ধার্য করেছেন ২৪ অক্টোবর। মৃত জুয়েলের খোয়া যাওয়া মোটর বাইকটি উদ্ধার করা সম্ভব হলে এ মামলাটির জট খুলবে বলে ওই পুলিশ কর্মকর্তা দাবী করেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: