১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নওগাঁর মান্দায় হত্যা মামলার আসামিরা পিটিয়ে জখম করলো সাক্ষীকে!


নওগাঁর মান্দায় হত্যা মামলার আসামিরা পিটিয়ে জখম করলো সাক্ষীকে!

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ ॥ নওগাঁর মান্দায় একটি হত্যা মামলার অন্যতম সাক্ষী নাজিম উদ্দিনকে (৩২) পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে উপজেলার পাঁজরভাঙ্গা বাজারের নওগাঁ জুয়েলার্স নামে একটি দোকানের সামনে এ ঘটনা ঘটে। আহত নাজিম উদ্দিনকে উদ্ধার করে মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি উপজেলার চকরামানন্দ গ্রামের নাসির উদ্দিনের ছেলে ও একই গ্রামের ইনতাজ আলী হত্যা মামলার অন্যতম সাক্ষী। ঘটনায় ৫ জনের বিরুদ্ধে মান্দা থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

চিকিৎসাধীন নাজিম উদ্দিন জানান, ইনতাজ আলী হত্যা মামলায় তিনি এজাহারভূক্ত সাক্ষী। ওই মামলার প্রধান আসামি আতাউর রহমান সাক্ষ্য না দেয়ার জন্য তাকে চাপ দিয়ে আসছিলেন। এতে তিনি কর্নপাত করেন নি। জের ধরে শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে পাঁজরভাঙ্গা বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে হত্যা মামলার আসামি আতাউর রহমানের নেতৃত্বে ৫-৬ জন সংঘবদ্ধ হয়ে তার ওপর হামলা চালায়। এতে তিনি গুরুতর জখম হন। ঘটনায় নাজিম উদ্দিনের ভাই শরিফুল ইসলাম বাদি হয়ে আতাউর রহমান, আরিফ, বাবুসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মান্দা থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

উল্লেখ্য, নওগাঁর মান্দা উপজেলার চকরামানন্দ গ্রামের নুরুদ্দীনের ছেলে রাজমিস্ত্রি ইনতাজ আলী কাজ দেখাশোনার কথা বলে গত ১৭ আগস্ট বিকেল ৩ টার দিকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। রাত ৩টার দিকে পাঁজরভাঙ্গা গ্রামের আতাউর রহমান লাটা নিজস্ব মাইক্রোবাসে করে ইনতাজ আলীর লাশ তার বাড়িতে পৌঁছে দেন। ঘটনায় ইউডি মামলার প্রেক্ষিতে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী নাজমা বিবি বাদি হয়ে গত ২৮ আগস্ট নওগাঁ আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় আতাউর রহমান, আরিফ হোসেন, হারুন অর রশিদসহ ৮ জনকে আসামি করা হয়। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে ইউডি মামলার ছায়ালিপি ও সুরতহাল প্রতিবেদন তলব করে। এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিলের পর গত ২৭ সেপ্টেম্বর মামলাটি হত্যা মামলা হিসেবে রেকর্ডভূক্ত করার জন্য মান্দা থানার ওসিকে নির্দেশ দেন আদালত।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: