২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আর্সেনালের ঘাম ঝরানো জয়


আর্সেনালের ঘাম ঝরানো জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ উয়েফা ইউরোপা লীগ ফুটবলে ঘাম ঝরানো জয় পেয়েছে আর্সেনাল। বৃহস্পতিবার রাতে ‘এইচ’ গ্রুপের ম্যাচে অলিভিয়ের জিরুডের শেষ মুহূর্তের লক্ষ্যভেদে ইংলিশ ক্লাব আর্সেনাল ১-০ গোলে হারিয়েছে সার্বিয়ার ক্লাব রেড স্টার বেলগ্রেডকে। এদিন জয় পেতে কষ্ট হলেও আর্সেন ওয়েঙ্গারের দল গ্রুপে টানা তিন ম্যাচ জিতে নকআউট পর্বের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে।

এই জয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে ‘এইচ’ গ্রুপের শীর্ষে আছে আর্সেনাল। ৪ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে বাটে বরিসভ। সমান পয়েন্ট নিয়েও গোল ব্যবধানে পিছিয়ে তৃতীয় রেড স্টার বেলগ্রেড। আর এফসি কোলন এখনও কোন পয়েন্ট পায়নি। পরশু রাতের আরেক ম্যাচে কোলনকে ১-০ গোলে হারায় বরিসভ। প্রতিপক্ষের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ করে খেলতে থাকে আর্সেনাল। প্রথমার্ধে বেশ কিছু সুযোগও পায় ইংলিশ দলটি। তবে ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় গোলের দেখা পায়নি গানার্সরা। বিরতির পর আক্রমণের ধার বাড়িয়ে দেয় সফরকারীরা। কয়েকটি সুযোগও পান জিরুড-উইলসশেয়াররা। তবে বল জালে জড়াতে ব্যর্থ হন। ম্যাচের ৮০ মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন রেড স্টার বেলগ্রেডের সার্বিয়ান ডিফেন্ডার মিলান রোডিচ। ফলে স্বাগতিকরা পরিণত হয় ১০ জনের দলে। এই সুযোগে স্বাগতিকদের রক্ষণে চাপ বাড়ায় আর্সেনাল।

অবশেষে ম্যাচের ৮৫ মিনিটে কাক্সিক্ষত গোলের দেখা পায় আর্সেনাল। প্রতিপক্ষের বক্সের ডানদিকে বল পান থিও ওয়ালকট। ইংলিশ ফরোয়ার্ড জ্যাক উইলসশেয়ারের সঙ্গে ওয়ান-টু খেলে হেডে বল বাড়ান জিরুডকে। বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ফরাসী ফরোয়ার্ড দারুণ ওভারহেড কিকে বল জালে জড়িয়ে দেন। এই গোলেই জয় নিয়ে ফিরেছে ইংলিশ পরাশক্তিরা। তবে দলের পারফর্মেন্সে সন্তুষ্ট হতে পারেননি গানার্স বস ওয়েঙ্গার। এদিকে দীর্ঘদিন ম্যানচেস্টার সিটিতেই থাকতে চান ক্লাবটির তারকা মিডফিল্ডার রাহিম স্টার্লিং। তিনি জানিয়েছেন, কখনই আর্সেনালে যাওয়ার বিষয়টি তিনি বিবেচনা করেননি। গ্রীষ্মকালীন দলবদলের শেষদিকে সিটি চিলিয়ান তারকা ফরোয়ার্ড এ্যালেক্সিস সানচেজকে দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করেছিল। তখনই গুজব উঠেছিল স্টার্লিং হয়তোবা এমিরেটস স্টেডিয়ামে পাড়ি জমাচ্ছেন। পেপ গার্ডিওলার সিটির পক্ষ থেকে সবসময়ই একটা ইঙ্গিত ছিল সানচেজকে দলে নিতে প্রয়োজনে মোটা অঙ্কের অর্থই ক্লাবের পক্ষ থেকে ব্যয় করা হবে। এ জন্য অবশ্য ৬০ মিলিয়ন পাউন্ডের চুক্তির বিষয়টিও শোনা গিয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সানচেজ আর্সেনালেই থাকার সিদ্ধান্ত নেন। আর্সেনালও সানচেজকে ছেড়ে দিতে এই চুক্তিতে রাজি ছিল। কিন্তু তার পরিবর্তে মোনাকো থেকে থমাস লেমারকে দলভুক্ত করতে ব্যর্থ হওয়ায় শেষ পর্যন্ত সানচেজকে আর ছাড়েনি গানার্সরা।

তবে স্টার্লিং জানিয়েছেন সিটি ছাড়ার কোন সম্ভাবনাই তার নেই। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এখানে আমি পাঁচ বছরের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। এখনও আমার চুক্তি আড়াই বছর বাকি। দারুণ একটি দলের সঙ্গে অসাধারণ একজন কোচের অধীনে আরও দীর্ঘদিন আমি থাকতে চাই।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: