২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মিথ্যে মামলা থেকে রেহাই পেলেন দুই নেতা


মিথ্যে মামলা থেকে রেহাই পেলেন দুই নেতা

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ জমিজমা নিয়ে বিরোধের জেরধরে আদালতে চলমান দেওয়ানী মামলা থেকে রেহাই পেতে প্রতিপক্ষের দায়ের করা চাঁদা দাবি ও শ্লীলতাহানীর অভিযোগে দায়ের করা মামলা পুলিশের তদন্তে মিথ্যে প্রমানিত হয়েছে। দীর্ঘ তদন্ত শেষে থানা পুলিশ আদালতে রিপোর্ট দাখিলের পর বিচারক মিথ্যে অভিযোগে দায়ের করা মামলাটি খারিজ করে দিয়েছেন। ফলে চার মাসের মধ্যেই মিথ্যে অভিযোগে দায়ের করা মামলা থেকে রেহাই পেয়েছেন দুই আওয়ামীলীগ নেতাসহ তিনজন। ঘটনাটি জেলার গৌরনদী পৌর এলাকার সাত নং ওয়ার্ড আশোকাঠী মহল্লার।

জানা গেছে, ওই মহল্লার স্থায়ী বাসিন্দা ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সিনিয়র সদস্য মোফাজ্জেল সরদার, ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হালিম সরদার ও তার বড়ভাই হায়দার সরদারের সাথে দীর্ঘদিন থেকে জমিজমা নিয়ে মৃত আব্দুল মজিদ মৃধার স্ত্রী জাবেদা খাতুন গংদের বিরোধ চলে আসছে। এ ঘটনায় হায়দার গংদের সাথে প্রতিপক্ষের আদালতে দেওয়ানী মামলা চলমান রয়েছে।

সূত্রে আরও জানা গেছে, ওই মামলা থেকে রেহাই পেতে কৌশলে জাবেদা খাতুন বাদি হয়ে গত ২৯ মে বরিশাল বিজ্ঞ অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি, শ্লীলতাহানী ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ এনে মোফাজ্জেল সরদার, হায়দার সরদার ও হালিম সরদারের নাম উল্লেখসহ আরও চারজনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে তদন্তের জন্য গৌরনদী মডেল থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশে পুলিশ দীর্ঘ তদন্ত শেষে আদালতে রিপোর্ট দাখিল করেন। ওই রিপোর্টের ভিত্তিতে বাদির অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যে ও ভিত্তিহীন প্রমানিত হওয়ায় বিচারক শিহাবুল ইসলাম গত ২৫ সেপ্টেম্বর জাবেদা খাতুনের দায়ের করা মামলাটি খারিজ করে দেন।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সিনিয়র সদস্য মোফাজ্জেল সরদার অভিযোগ করেন, জাবেদা খাতুনের দায়ের করা মিথ্যে মামলাটি খারিজ হওয়ার পর প্রতিপক্ষের লোকজনে গত কয়েকদিন থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নানা আপত্তিকর লেখা পোস্ট করে তাদের সম্মানহানী করে আসছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: