১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বাঁশখালীতে পুলিশের নামে ভূয়া আইডিতে প্রধানমন্ত্রীর নামে কুৎসা


বাঁশখালীতে পুলিশের নামে ভূয়া আইডিতে প্রধানমন্ত্রীর নামে কুৎসা

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাঁশখালী ॥ চট্টগ্রামের বাঁশখালী থানা পুলিশ সদস্য একাম উদ্দিনের নামে ভূয়া ফেইজবুক আইডি খুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হেয় করে বিভিন্ন স্টেটাস ও কুরুচিসম্পন্ন ছবি ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। তাছাড়া ওই আইডি হতে স্থানীয় ও জেলা পর্যায়ের বিভিন্ন আওয়ামীলীগ নেতাদেরকেও নিয়ে বিভিন্ন স্টেটাস দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) পুলিশ সদস্য একাম উদ্দিন বাদী হয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরী দায়ের করেছে। এদিকে ভূয়া ফেইজবুক আইডিতে প্রধানমন্ত্রীকে হেয় করার ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় চলছে।

ফেইজবুকে ভূয়া আইডির বিষয়ে সত্যতা স্বীকার করে থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলমগীর হোসেন বলেন, সামাজিক গণমাধ্যম ফেইজবুকে পুলিশ সদস্য নাম ব্যবহার করে ভূয়া আইডি খুলেছে একটি চক্র। এ বিষয়ে তথ্য আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তথ্য প্রযুক্তির অপব্যবহারকারী চক্রটি চিহ্নিত করা হয়েছে। শীঘ্রই এদেরকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে বলেও তিনি জানান।

জিডি ও আইডি সূত্রে দেখা যায়, বাঁশখালী থানায় কক্সবাজার জেলার পেকুয়া উপজেলার মৃত কবির আহমদের পুত্র একাম উদ্দিন দীর্ঘদিন ওয়ারলেস্ অপারেটর পদে চাকুরীতে রয়েছে। তথ্য প্রযুক্তির দেশে ফেইজবুক সকলেই ব্যবহার করে। সেই সুবাধে পুলিশ সদস্য একাম উদ্দিন ও ফেইজবুক ব্যবহারকারী। তবে তথ্য প্রযুক্তির দেশে তথ্য সন্ত্রাসের চক্রের ফাঁদে পড়েছে এই পুলিশ সদস্য। গত কিছুদিন যাবৎ ওই পুলিশ সদস্যের আইডির সাথে মিল রেখে ভূয়া আইডি খুলেছে তথ্য প্রযুক্তির একটি চক্র। ওই আইডি থেকে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ব্যাঙ্গাত্মক করে বিভিন্ন স্টেটাস ও ছবি সামাজিক গণমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। সামাজিক গণমাধ্যমে প্রচারের পর সমাজের বিভিন্ন মহলে তোলপাড় শুরু হলে বিষয়টি থানা পুলিশের নজরে আসে। পরে তদন্ত শেষে তথ্য প্রযুক্তি আইনে ওই পুলিশ সদস্য বিজ্ঞ আদালতের অনুমতি সাপেক্ষে সাধারণ ডায়েরী করেছে এই বিষয়ে।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলায় সামাজিক গণমাধ্যম ফেইজবুকের অপ-ব্যবহারকারী একটি চক্র দীর্ঘদিন থেকে বিভিন্ন নামে বেনামে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। এ বিষয়ে একাধিক ব্যক্তি বাঁশখালী থানায় হাজির হয়ে প্রতিকার চেয়ে আবেদন করেছে। যা তদন্তের মধ্যে সীমবদ্ধ থাকে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: