১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

নির্বাচন ভণ্ডুল করাই বিএনপির মূল উদ্দেশ্য ॥ তথ্যমন্ত্রী


নির্বাচন ভণ্ডুল করাই বিএনপির মূল উদ্দেশ্য ॥ তথ্যমন্ত্রী

অনলাইন রিপোর্টার ॥ তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, নির্বাচনের ঘরে ঢোকার নামে নির্বাচন ভণ্ডুল করাই বিএনপি-খালেদা জিয়ার মূল উদ্দেশ্য। তিনি বলেন, সহায়ক সরকারের নামে অস্বাভাবিক সরকার প্রতিষ্ঠার ষড়যন্ত্র করছে তারা।সেজন্যই নির্বাচন কমিশনের এখতিয়ার বহির্ভূত এক অস্বাভাবিক প্রস্তাবের বাণ্ডিল দিয়েছে বিএনপি।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর রমনা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে শেখ রাসেলের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আওয়ামী যুবলীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন তিনি।

যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় ১৫ আগস্ট ঘাতকদের হাতে নৃশংসভাবে শহীদ ‘শেখ রাসেল’কে গভীর মমতায় স্মরণ করে হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘মোস্তাক-জিয়া খুনী চক্র’ বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে এমনকি শিশুপুত্র শেখ রাসেলসহ হত্যা করে প্রকৃত পক্ষে বাঙালি জাতির আত্মাকে হত্যা করতে চেয়েছিল। কিন্তু জাতির আত্মাকে হত্যা করা যায় না। এ কারণেই শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আবার ঘুরে দাঁড়িয়েছে।

শেখ রাসেলের মতো শিশুকেও হত্যার কারণ অনুসন্ধানে তথ্যমন্ত্রী বলেন, একাত্তরের পরাজিত শক্তি বাংলাদেশকে উল্টো পথে নিয়ে যাবার জন্য জাতিকে অন্ধকারে ঠেলে দিতে চেয়েছিল, যাতে বাঙালি জাতি কখনই মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে না পারে। তারা খুনি রাজাকারদের পুণর্বাসন করেছিল আর রবীন্দ্রনাথ-নজরুলকে নির্বাসনে পাঠিয়েছিল।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া তাদেরই পথ অনুসরণ করে জঙ্গীসঙ্গ ত্যাগ করতে পারছেন না। তিনি শোধরাননি, মাফও চাননি। এদের হাত থেকে দেশ রক্ষায় আর কোনো রাজাকার সমর্থিত সরকার আসতে দেয়া যাবে না। একবার মুক্তিযোদ্ধা, আরেকবার রাজাকারের সরকার-রাজনীতির এই চেয়ার বদল খেলা এবারেই চিরতরে বন্ধ করতে হবে।

আলোচনা সভায় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদসহ যুবলীগ নেতারা সভায় বক্তব্য রাখেন। সভাশেষে যুবলীগ চেয়ারম্যান তার সম্পাদিত ‘শেখ রাসেল: আমাদের ভালোবাসা’ গ্রন্থটি তথ্যমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন।

এর আগে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু সকালে রাজধানীর তোপখানা রোড়ে জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘খাদ্য নিরাপত্তা ও গ্রামীণ উন্নয়নে নিরাপদ খাদ্য ব্যবস্থায় বিনিয়োগ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বলেন, সুস্থ জাতি গড়তে স্বাস্থ্যবান্ধব কৃষি ও নিরাপদ খাদ্যের কোনো বিকল্প নেই। আর এজন্য সরকারের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থাকে আরো এগিয়ে আসতে হবে।

বেসরকারি সংস্থা বাংলাদেশ সেফ এগ্রো ফুড ইফোর্টস (বিসেফ) ফাউন্ডেশন ও উন্নয়ন ধারা যৌথভাবে আয়োজিত এ সেমিনারে কৃষি বিজ্ঞানী ড. জয়নুল আবেদীন সভাপতিত্ব করেন। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিরোধীদলীয় হুইপ ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য নূরুল ইসলাম ওমর এমপি, বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মাহফুজুল হক, কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ড. ওয়ারেছ কবীর ও জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচির জ্যেষ্ঠ জাতীয় পরামর্শক অধ্যাপক ডা. শাহ মুনির হোসেন।

অন্যান্যের মধ্যে ড. এস এম মনোয়ার হোসেন, অধ্যাপক ড. লতিফুর বারী, ড. মো. রফিকুল ইসলাম নির্ধারিত আলোচনায় অংশ নেন। কৃষিবিদ শহীদুল ইসলাম সেমিনারের বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: