২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নেত্রকোনায় কলেজছাত্রীকে কুপিয়ে জখম


নেত্রকোনায় কলেজছাত্রীকে কুপিয়ে জখম

নিজস্ব সংবাদদাতা, নেত্রকোনা ॥ প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হয়ে এক বখাটে যুবক এক কলেজছাত্রীকে চাপাতি দিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে মারাত্মক ক্ষতবিক্ষত করেছে। একই সঙ্গে কেটে দিয়েছে তার মাথার চুলও। মঙ্গলবার বিকাল তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে কেন্দুয়া উপজেলা সদরের শান্তিনগর এলাকায়। আহত কলেজ ছাত্রীর নাম জান্নাতুল আক্তার (১৮)। সে কেন্দুয়া উপজেলা সদরের পারভীন সিরাজ মহিলা কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। ঘটনার পর তাকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

জানা গেছে, জান্নাতুল আক্তারের বাড়ি কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলার রায়টুটি ইউনিয়নের পাথাইরকান্দি গ্রামে। সে ওই গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফের মেয়ে। জান্নাতুল কেন্দুয়া উপজেলা সদরের শান্তিনগর এলাকার এক বাসায় ভাড়া থেকে স্থানীয় পারভীন সিরাজ মহিলা কলেজে পড়ত। একই এলাকার রাজমিস্ত্রি সোহাগের বখাটে শ্যালক ইমন (২২) প্রায় সময় তাকে উত্যক্ত করতো।

গার্মেন্টস কর্মী ইমন কেন্দুয়ার মোজাফরপুর ইউনিয়নের গগডা ভূঁইয়াপাড়া গ্রামের মোহর আলীর ছেলে। জান্নাতুল কখনও তার আহ্বানে সাড়া দেয়নি। এরপরও ইমন তার পিছু ছাড়েনি। গত দু’দিন ধরে সে তার ভগ্নিপতির বাসায় অবস্থান নিয়ে মেয়েটির ওপর হামলার পরিকল্পনা করে। সে অনুযায়ী মঙ্গলবার বিকাল তিনটার দিকে শান্তিনগর এলাকার নির্জন রাস্তায় মেয়েটিকে একা পেয়ে তার ওপর হামলা চালায়। চাপাতি দিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে মেয়েটির মুখ, পিঠ, বুক এবং হাতসহ শরীরের অন্তত ১০-১২টি জায়গায় ক্ষত বিক্ষত করে। এক পর্যায়ে তার মাথার চুলও কেটে দেয়।

এ সময় মেয়েটির আর্ত-চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। এদিকে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ছাত্রীর মাথার কাটা চুল, জামা, রক্তাক্ত জুতো ও চাপাতিটি উদ্ধার করে। তবে ইমনকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, যে স্থানটিতে ছাত্রীটিকে কোপানো হয়েছে সেই স্থানটি রক্তে ভেসে গেছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে কেন্দুয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সোহান সরকার জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে ছাত্রীটি প্রেমে সাড়া না দেয়াতেই এমনটি ঘটেছে। বখাটে ইমনকে গ্রেফতারের উদ্দেশ্যে পুলিশের কয়েকটি টিম বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: