২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

দেশে ফিরে গণতন্ত্রের জন্য আন্দোলন শুরু করবেন খালেদা ॥ রিজভী


দেশে ফিরে গণতন্ত্রের জন্য আন্দোলন শুরু করবেন খালেদা ॥ রিজভী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সরকারি দলের সব অপপ্রচার ও গ্রেফতারি পরোয়ানা বিদীর্ণ করে আগামীকাল বুধবার সন্ধ্যায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া দেশে ফিরে আসছেন উল্লেখ করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, দেশে ফিরেই তিনি গণতন্ত্রেও জন্য আন্দোলন শুরু করবেন। গ্রেফতারি পরোয়ানার মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে দুর্বল করা যাবে না।

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেক্লাবের সামনে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে বিএনপির অঙ্গ সংগঠন জাসাস আয়োজিত মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

রিজভী বলেন, পালানোর অভ্যাস সরকারি দলের নেতাদেও আছে, খালেদা জিয়ার নেই। খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য লন্ডনে গেলেও তাঁর দেশে ফেরার ঠিক আগ মুহূর্তে পরিকল্পিতভাবে বিভিন্ন মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। গ্রেফতারি পরোয়ানা দিয়ে খালেদা জিয়াকে দুর্বল করা যাবে না। তিনি সচল, অব্যয়, অক্ষয়।

দেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য প্রধানমন্ত্রীই প্রধান বাধা মন্তব্য করে রিজভী বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নির্দলীয়, সহায়ক সরকারের অধীনেই হতে হবে। বিএনপি সম্পর্কে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দেয়া বক্তব্য সম্পর্কে রিজভী বলেন, কেউ সত্য স্বীকার করলেই আওয়ামী লীগের গা জ্বলে। জিয়াউর রহমান এদেশে বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা- এটাই সত্য। কখনও তা অস্বীকার করা যাবে না।

রিজভী বলেন, দেশে কখন কি করতে হবে সব ছক আওয়ামী লীগ করে রেখেছে। কখন আইন মন্ত্রীকে ছুটিতে পাঠাতে হবে, কখন বিএনপি বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করতে হবে, কখন প্রধান বিচারপতির ক্যান্সার হয়েছে বলতে হবে এসবের সময় নির্ধারণ করা আছে। কিন্তু তারা কি ভুলে গেছে জনগণের একটা ছক আছে? আওয়ামী লীগকে দেশের জনগণ একদিন গলায় গামছা দিয়ে ক্ষমতা থেকে টেনে নামাবে।

আইন মন্ত্রীর সমালোচনা করে রিজভী বলেন, মন্ত্রী সাহেব আপনি রাস্তায় বের হলে সামনে-পেছনে, ডানে-বায়ে পুলিশের হুইসেল বাজে। আপনি জনগণের মনের কথা কিভাবে বুঝবেন। আপনি যে মিথ্যাচার করছেন সেটা জনগণের মনে দাগ কেটে আছে। আপনি বলেন প্রধান বিচারপতির ক্যান্সার হয়েছে, আর তিনি বলেন আমি সুস্থ্য। আপনি এতোবড় মিথ্যা কথা বলেন!

মানবন্ধন কর্মসূচিতে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক আশরাফ উদ্দিন উজ্জ্বল, জাসাস সভাপতি ড. মামুন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক হেলাল খান, সহ-সভাপতি হাসান আহমেদ, মনিরুজ্জামান মনির, শাহরিয়ার ইসলাম শায়লা, যুগ্ম সম্পাদক জাকির হোসেন রিপন প্রমুখ।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: