২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নেত্রকোনায় হিন্দু দম্পতি হত্যা ॥ সন্দেহভাজন ২ জন আটক


নেত্রকোনায় হিন্দু দম্পতি হত্যা ॥ সন্দেহভাজন ২ জন আটক

নিজস্ব সংবাদদাতা, নেত্রকোনা ॥ জেলা শহরের সাতপাই বাবলু সরণি এলাকার নিজ বাসা থেকে স্বামী-স্ত্রীর লাশ উদ্ধারের তিন দিনেও প্রকৃত হত্যাকারীদের চিহ্নিত করতে পারেনি পুলিশ। তবে নেত্রকোনা মডেল থানা পুলিশ রবিবার ওই এলাকার দুই যুবককে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করেছে।

আটকরা হচ্ছে সাতপাই নদীরপাড় এলাকার আব্দুল মজিদের ছেলে নয়ন এবং পালপাড়ার মিজানুর রহমানের ছেলে সালমান।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আলম জনকণ্ঠকে জানান, আটক যুবকদের বিরুদ্ধে মাদক সেবনসহ নানা ধরনের অপরাধের অভিযোগ রয়েছে। হিন্দু দম্পতি হত্যার ঘটনায় তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এদিকে নৃশংস এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে রবিবার জেলা সদরে বিক্ষোভ মানববন্ধন করেছে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের জেলা শাখা।

এদিকে থানা পুলিশের পাশাপাশি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি), গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি) ও পুলিশ বু্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ঘটনাটি তদন্তে মাঠে নেমেছেন। ইতিমধ্যে তারা বিভিন্ন ধরনের আলামত ও নিহতদের স্বজন এবং স্থানীয়দের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেছেন। সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন বলেন, ‘সম্ভাব্য কী কী কারণে এ হত্যাকা- ঘটতে পারে এবং কয়জন এ হত্যাকা-ে অংশ নিয়েছেÑ আপাতত আমরা সে বিষয়গুলো নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা করছি। পুরোপুরি নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত কোনো তথ্যই প্রকাশ করা সম্ভব নয়’।

গত শুক্রবার দুপুরে সাতপাই বাবুল সরণি এলাকার নিজ বাসা থেকে ওই দম্পতির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহতরা হলেনঃ অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক ও বিএডিসির সাবেক কর্মচারী মিহির কান্তি বিশ্বাস (৭০) এবং তার স্ত্রী সমাজসেবা অধিদপ্তরের ইউনিয়ন সমাজকর্মী সহিতা রানী চন্দ ওরফে তুলিকা (৫৬)। তারা দু’জন দীর্ঘদিন ধরে বাবলু সরণির ওই বাসায় বসবাস করছিলেন। তাদের একমাত্র ছেলে সুমন বিশ্বাস ঢাকায় বায়িং হাউজে চাকরি করেন। আর মেয়ে বৈবাহিক সূত্রে সিলেটে থাকেন। ধারণা করা হচ্ছে, বুধবার সন্ধ্যা থেকে রাত ন’টার মধ্যে দুর্বৃত্তরা এ হত্যাকা- ঘটিয়েছে।

এর দুই বছর আগে ২০১৫ সালের ২৩ অক্টোবর একই ধরনের অপর এক ঘটনা ঘটে জেলার দুর্গাপুর উপজেলা সদরের মধ্যবাজারে। সেখানকার ধনাঢ্য ব্যবসায়ী অরুণ কুমার সাহা ও তার স্ত্রী হেনা রানী সাহাকে নিজেদের তিনতলা বাসায় খুন করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। এখন পর্যন্ত পুলিশ ওই ঘটনার কোনো রহস্য উদ্ঘাটন করতে পারেনি। বর্তমানে মামলাটি সিআইডি তদন্ত করছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: