২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

রায়পুর সরকারী হাসপাতালে কুকুর আতংক ॥ রোগীদের দূর্ভোগ


রায়পুর সরকারী হাসপাতালে কুকুর আতংক ॥ রোগীদের দূর্ভোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, রায়পুর, লক্ষ্মীপুর ॥ চরবংশীর খাসের হাট এলাকা থেকে স্বপ্না বেগম (৪৮) ভোর ছয়টায় তার জ্বরাক্রান্ত নাতিকে নিয়ে ও সকাল সাড়ে আটটায় চরমোহনা গ্রাম থেকে মমিন পাটোয়ারী (৫৫) নিজেই স্বাস্ত্য পরীক্ষা করতে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসেন। সকাল সাড়ে নয়টা পর্যন্ত কোন ডাক্তার না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এরা কি ডাক্তার নাকি অন্য কিছু? আমরা ১৫-১৮ জন রোগী ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করছি আর তাদের আাসার নাম গন্ধ পর্যন্ত নেই। হাসপাতালের এসব অনিয়ম দেখার কি কেউ নেই? অন্য দিকে হাসপাতালেরর জরূরী বিভাগের সামনে প্রতিদিন কুকুর উপদ্রবে আতংকে থাকেন রোগী ও হাসপাতারের কর্মচারীরা। সকাল সাড়ে নয়টায় ডাঃ আনোয়ার আজাদ জরুরী বিভাগে আসলে কুকুর প্রসঙ্গে বলেন, কুকুর জরুরী বিভাগের সামনেই নয়, মাঝে মাঝে ভিতরে ঢুকেও আমরা কেমন আছি তা দেখে যায় বলে হাস্যরস করেন।

হাসপাতাল সংলগ্ন পান দোকানদার মিহির কুরী জানান, টিএইচওর অনুপস্থিতিতে প্রায় সকল ডাক্তারই সরকারী নিয়ম না মেনে তাদের ইচ্ছেমত আসেন। ডাক্তারের স্বল্পতা থাকার পরও কর্তব্যরতদের স্বেচ্ছাচারিতা, অনিয়ম- অব্যবস্থাপনা যেন হাসপাতালতে ঘিরে ধরে আছে।

এবিষয়ে কর্তব্যরত মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ অনোয়ার আজাদ বলেন, আমি একজন ছোট ডাক্তার। স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ শায়েলা জাহান শিমু ম্যাডাম কোথায় আছেন আমি নিজেও জানি না।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: