২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

জাপানকে আজ হারাতে চায় বাংলাদেশ


জাপানকে আজ হারাতে চায় বাংলাদেশ

রুমেল খান ॥ সাত একে সাত, সাত দুগুণে চৌদ্দ ...! না, এটা নামতা নয়। এটা গত দুই ম্যাচে দুই প্রতিপক্ষের কাছে সাত গোল হজম করার হিসেব। হ্যাঁ, পাঠক ঠিকই ধরেছেন বাংলাদেশ জাতীয় হকি দলের কথাই বলছি। এশিয়া কাপ হকিতে তারা নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে পাকিস্তান ও ভারতের কাছে যথাক্রমে ০-৭ গোলে পরাভূত হয় লাল-সবুজ বাহিনী। এই দুই হারে ইতোমধ্যেই সুপার ফোরে যাবার আশা বিলীন হয়ে গেছে মাহবুব হারুনের শিষ্যদের। এখন তাদের খেলতে হবে পঞ্চম থেকে অষ্টম স্থান নির্ধারণী ম্যাচে। যদি তারা বিশ্বকাপ হকির বাছাইপর্বের খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে চায় সেক্ষেত্রে তাদের এই আসরে কমপক্ষে দুটি ম্যাচে জিততেই হবে। সেই দুই ম্যাচের একটিতে জেতার লক্ষ্যে আজ তারা মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামের নীল টার্ফে নামবে বিকেল ৩টায়। প্রতিপক্ষ জাপান।

টুর্নামেন্ট শুরুর আগে সপ্তদশ র‌্যাঙ্কিংধারী জাপানের সঙ্গে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছিল ৩৪ নম্বর র‌্যাঙ্কিংধারী বাংলাদেশ। ৪০ মিনিটের এই ম্যাচে দূরপ্রাচ্যের সূর্যোদয়ের দেশ জাপানকে ২-১ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। সেই ম্যাচের ফল থেকে আজকের ম্যাচের জন্য জেতার প্রেরণা খুঁজতে পারে জিমিবাহিনী।

তবে হকিমোদীরা বলছেন ভিন্ন কথা। তাদের মতেÑ প্রস্তুতি ম্যাচ আর টুর্নামেন্টের ম্যাচ এক ব্যাপার নয়। কেননা ওই ম্যাচে জাপান তাদের আসল খেলা খেলেনি, আসল খেলোয়াড়দের নামায়নি। কাজেই ওই ফল নিয়ে বাংলাদেশ দলের এত উচ্ছ্বসিত হবার কিছু নেই।

তবে আজকের ম্যাচে বাংলাদেশ দলের জয় নিয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন দলের হেড কোচ মাহবুব হারুন, ‘আমরা তিন পয়েন্টের জন্য নামব। ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে মানসিকভাবে দল পিছিয়ে ছিল। আশাকরি জাপান ম্যাচে তেমনটা হবে না। পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করবে দল। পিন্টু এ্যাঙ্কেলে চোট পেয়েছে, ভারত ম্যাচে পিসির সময় খোরশেদের ওপর একটু প্রেসার গেছে। আশাকরি ফিজিও ওদের দেখবে। আশাকরি ওরা ম্যাচে খেলতে পারবে। তবে যদি মানসিকভাবে পিছিয়ে থাকে দল তাহলে সম্ভব না। তবে হাতে যেহেতু কয়েক ঘণ্টা বাকি আছে। জাপান ম্যাচের ভিডিও সেশন দেখব। জাপান ভাল দল। পাকিস্তানের বিপক্ষে ভাল খেলেছে। আমরাও খেলব। দেখা যাক কি হয়।’ হারুন আরও যোগ করেন, ‘আমি শুরু থেকে বলে আসছি আমরা গ্রুপ ম্যাচ নিয়ে চিন্তা করছি না। স্থান নির্ধারণীতে চোখ আমাদের। মিডফিল্ড আমাদের দুর্বল। কারণ অনুর্ধ-১৮ দলের রোমান এবং নাঈম খেলেছে। স্বাভাবিক একটু তো পিছিয়ে।’ দলের নির্ভরযোগ্য খেলোয়াড় আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘জাপানের বিপক্ষে ভাল খেলাই লক্ষ্য আমাদের। আমাদের যদি নিজেদের সেরাটা দিতে পারি তাহলে ভাল কিছুই হবে। প্রস্তুতি ম্যাচে জয় আমাদের মানসিকভাবে সাপোর্ট করবে। ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে যে ভুলগুলো ছিল সেগুলো জাপান ম্যাচে না করার চেষ্টা করব। ভারত-পাকিস্তান অনেক কঠিন দল। ওদের ডি-বক্সে আমরা মাত্র তিন-চারটা আক্রমণ করতে পেরেছি। আশাকরি জাপানের বিপক্ষে আমরা পেনাল্টি কর্নার পাব। পেনাল্টি কর্নার আসলে আমাদের শক্তির জায়গা। ভারত-পাকিস্তান অনেক শক্তিশালী দল ছিল। ওদের সার্কেলে আমরা দু’চারবার ঢুকতে পেরেছি। ভারত-পাকিস্তানের তুলনায় জাপান আমি মনে করি ভাল। আশাকরি জাপানের বিপক্ষে আমরা পেনাল্টি কর্নার পাব।’

জাপান দলের কোচ সিগফ্রাইড একম্যান বলেন, ‘প্রস্তুতি ম্যাচে হারলেও সেটা শুধুই প্রস্তুতি ম্যাচ ছিল। রবিবারের (আজ) ম্যাচে অন্য কৌশলে নামব আমরা। আমাদের এখনও সুযোগ আছে সুপার ফোরে নাম লেখানোর। আমাদের বিশ্বাস, বাংলাদেশকে আমরা হারাতে পারব। পাকিস্তানের বিপক্ষে আমরা যেভাবে খেলেছি তাতে আমরা অল্পের জন্য জিততে পারিনি। আশাকরি বাংলাদেশের বিপক্ষে আমরা জিতে তিন পয়েন্ট অর্জন করতে পারব।’

মুখোমুখি হবার আগে বাংলাদেশ-জাপান দল শেষবারের মতো অনুশীলনে ঘাম ঝরায় শনিবার সকালে মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে। অনুশীলনে সিরিয়াস মনে হয়েছে দুই দলকেই। দুই দলই জিততে মরিয়া। এখন দেখার বিষয় আজকের ম্যাচের ফল কি হয়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: