১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিশ্বব্যাংকের কাছে আর্থিক সহায়তা চাইলেন অর্থমন্ত্রী


রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিশ্বব্যাংকের কাছে আর্থিক সহায়তা চাইলেন অর্থমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে বিশ্বব্যাংকের কাছে আর্থিক সহায়তা চাইলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। ওয়াশিংটনে চলমান সংস্থার বার্ষিক সাধারণ সভা উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক বৈঠকে তিনি শীর্ষ কর্মকর্তাদের কাছে বুধবার আর্থিক সহায়তা চান। বৈঠকে বিশ্ব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ক্রিস্টালিনা জর্জিয়েভা এবং দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট অ্যানেট ডিক্সন উপস্থিত ছিলেন। বৃহস্পতিবার বিশ্বব্যাংকের ঢাকা কার্যালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ সব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দারিদ্র নিরসনে সংগ্রামরত অবস্থায় রোহিঙ্গাদের সহায়তার লক্ষ্যে নেয়া বাংলাদেশের উদ্যোগের প্রশাংসা করেছে বিশ্বব্যাংক। সংস্থাটি এ বিষয়য়ে অর্থ সহায়তা দিতে প্রাথমিকভাবে সম্মত হয়েছে। তবে সহায়তার পরিমাণ এখনো নির্ধারিত হয়নি। রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকায় স্বাস্থ্য, শিক্ষা, পানি, স্যানিটেশন ও সড়ক অবকাঠামো খাতে বিনিয়োগ করবে বিশ্বব্যাংক।

বৈঠকে রোহিঙ্গাদের জন্য সীমান্ত উš§ুক্ত রাখায় বাংলাদেশের প্রশাংশা করেছেন বিশ্বব্যাংকের কর্তারা। তারা বলেন, রোহিঙ্গাদের জন্য সহায়তার হাত প্রসারিত করা হয়েছে। দেশটি নিজেই দারিদ্র্যতার বিরুদ্ধে সংগ্রাম ও ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। বৈঠকে আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, রোহিঙ্গার স্রোত বাংলাদেশের অর্থনীতিকে ব্যপকভাবে প্রভাবিত করছে। প্রতিদিন নতুন শরণার্থী আসায় পরিস্থিতির দ্রুত পরিবর্তন হচ্ছে। দৃঢ়তা ও উদারতার জন্য তিনি বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের প্রতি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সঙ্কট মোকাবেলায় বিশ্বের মানবিক ও উন্নয়ন সহায়তা প্রয়োজন। তিনি এ বিষয়ে বিশ্বব্যাংকের সহায়তা কামনা করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়,বাংলাদেশ সরকার রোহিঙ্গা সঙ্কট মোকাবেলায় শরনার্থীদের জন্য নতুন করে গঠন করা তহবিল থেকে সহায়তা পেতে পারে। এ বিষয়ে বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট অ্যানেট ডিক্সন বলেন, দারিদ্র নিরসন ও সমৃদ্ধি অর্জনে বাংলাদেশ কাজ করছে। এ অবস্থায় রোহিঙ্গাদের জন্য বাংলাদেশের উদ্যোগের প্রশাংসা করছে বিশ্বব্যাংক। রোহিঙ্গারা দ্রুত তাদের দেশে ফিরে যেতে পারবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। স্থানীয় লোকজনের পাশাপাশি এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সহায়তা দিচ্ছে। তাদের সহায়তার লক্ষ্যে বিশ্বব্যাংক সম্ভাব্য সব কিছু করবে বলে তিনি আশ্বাস দেন।

সূত্র জানায়,রোহিঙ্গা ইস্যুতে ঋণ বা অনুদান হিসেবে ৪০ কোটি ডলার সহায়তার সম্ভাবনার কথা আগেই জানিয়েছিল বিশ্বব্যাংকের ঢাকা কার্যালয়। রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনে বিশ্বব্যাংক থেকে বাংলাদেশ বড় অঙ্কের আর্থিক সহায়তা পেতে পারে বলে সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন কান্ট্রি ডিরেক্টর চিমিয়াও ফান। তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী অভিবাসন সমস্যা মোকাবেলায় বিশ্বব্যাংকের ২০০ কোটি ডলারের তহবিল রয়েছে। একক দেশ হিসেবে বাংলাদেশ সেই তহবিল থেকে ৪০ কোটি ডলার পেতে পারে। ঋণ বা অনুদান বাবদ এ অর্থ পেতে পারে বাংলাদেশ। এ সহায়তা অনুদানে রূপান্তর করতে হলে এ খাতে কি প্রকল্প নেয়া হচ্ছে তা বিবেচনা করা হবে। অবশ্য বিশ্বব্যাংক থেকে অনুদান হিসেবেই এ অর্থ চাইবে বলে জানিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: