১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

অটোরিকশার ইকোনোমিক লাইফ বৃদ্ধি হলে দুর্ঘটনা বাড়বে


অটোরিকশার ইকোনোমিক লাইফ বৃদ্ধি হলে দুর্ঘটনা বাড়বে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মালিকপক্ষের দাবি অনুযায়ী সিএনজিচালিত অটোরিকশার ইকোনোমিক লাইফ (আয়ুষ্কাল) বৃদ্ধি করলে তা মোটরযান আইনের লঙ্ঘন হবে বলে দাবি করেছেন শ্রমিকরা। বুধবার ঢাকা জেলা অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের আয়োজনে জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করেন তারা। এছাড়াও আরেকটি শ্রমিক সংগঠন একই দাবিতে সমাবেশ ও সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ে স্বারকলিপি দিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, গত ৩ অক্টোবর ‘ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরী সিএনজি অটোরিকশা মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ’ সংবাদ সম্মেলন করে। সেখানে তারা ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে চলাচলরত সিএনজিচালিত অটোরিকশার পুরনো ইঞ্জিন ও গ্যাস সিলিন্ডার প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে ইকোনোমিক লাইফ (আয়ুষ্কাল) ৬ বছর বৃদ্ধির দাবি করেছেন। আমরা এ দাবির তীব্র বিরোধিতা করছি।

বক্তারা বলেন, বিআরটিএ যদি মালিকদের এ দাবি মেনে নেয় তাহলে তা হবে জনস্বার্থ পরিপন্থী, মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ এবং মোটরযান আইনের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

এর ব্যাখ্যায় শ্রমিক নেতারা বলেন, কারণ এসব যানের মেয়াদকাল ছিলো ১১ বছর। আগে মালিকদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বিআরটিএ বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের যন্ত্রকৌশল বিভাগের কাছে কত বছর মেয়াদ বৃদ্ধি করা যাবে তার পরামর্শ নেয়। সেখানে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই বিভাগ সর্বোচ্চ ১১ থেকে ১৫ বছর পর্যন্ত বৃদ্ধির সুপারিশ করে। এর প্রেক্ষিতে ২০১৪ সালের ২৩ মে মেয়াদ বৃদ্ধি করে ১১ থেকে ১৫ করা হয়। যা শেষ হবে চলতি বছরের ডিসেম্বরে। কিন্তু আগে থেকেই মালিকা মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করছে। আমাদের দাবি থাকবে জননিরাপত্তার কথা বিবেচনায় নিয়ে সরকার তাদের দাবির প্রতি সাড়া দেবে না।

বক্তারা বলেন, বর্তমানে মালিকপক্ষ আবারো ৬ বছরের মেয়াদ বৃদ্ধির দাবি করছেন। তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে মেয়াদ বাড়ানো হলে তা চালক ও যাত্রীদের জন্য বিপজ্জনক হবে। বাড়বে দুর্ঘটনা। কারণ ১৫ বছর ব্যবহৃত ড্যামেজ চেসিসে নতুন ইঞ্জিন দিয়ে আবার রাস্তায় অটোরিকশা নামালে যেকোনো সময় চেসিস ভেঙে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা জেলা অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মজিবর রহমান মাস্টারের সভাপতিত্বে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন। এসময় সংবাদ সম্মেলনে শ্রমিক ইউনিয়নের বিভিন্ন পর্যায়ের প্রায় অর্ধশত নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরে চলাচলরত সিএনজি চালিত ফোর-স্ট্রোক অটোরিক্সার মেয়াদান্তে ১৫ বছরের পুরাতন ডেমেজ চেসিজে নতুন ইঞ্জিন প্রতিস্থাপন করে জনস্বার্থে ইকোনমিক লাইফ (আয়ুস্কাল) ২১ বছর বৃদ্ধি না করা ও পরিবহন শ্রমিকদের মালিক কর্তৃক নিয়োগপত্র প্রদান সহ ১২ দফা দাবি বাস্তবায়নে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরর কাছে স্বারকলিপি দিয়েছে সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ।

এর আগে বুধবার সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহানগরে ১৮-১৯ অক্টোবর অবৈধভাবে ৪৮ ঘন্টা সিএনজি-অটোরিকসা ধর্মঘট আহ্বানের প্রতিবাদে এবং পরিবহন শ্রমিকদের মালিক কর্তৃক নিয়োগপত্র প্রদান সহ ১২ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে সংগঠনের পক্ষ থেকে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন পরিবহন শ্রমিক জমায়েত সংগঠনের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইনসুর আলী, যুগ্ম-সম্পাদক মোহাম্মদ হানিফ খোকন, মো. মজিবুর রহমান খান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মো. এনামুল কবির মিরাজ, অর্থ সম্পাদক- মো. রেজাউল করিম, প্রচার সম্পাদক মো. মোশারফ হোসেন, মোঃ সুমন শেখ, মো. চাঁন মিয়া প্রমুখ।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরে চলাচলরত সিএনজি চালিত ফোর-স্ট্রোক অটোরিক্সা মালিকদের দাবির প্রেক্ষিতে ইকোনমিক লাইফ ৯ বছর থেকে তিন দফায় ১৫ বছর বৃদ্ধি করা হয়। পুরাতন ডেমেজ চেসিজে নতুন ইঞ্জিন প্রতিস্থাপন করে মোটরযান আইনের পরিপন্থি উল্লেখ করে ইকোনমিক লাইফ (আয়ুস্কাল) ১৫ বছরের স্থলে ২১ বছর বৃদ্ধি না করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবি জানানো হয়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: