২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বিসর্জন নিয়ে সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যা দিলেন মমতা


বিসর্জন নিয়ে সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যা দিলেন মমতা

অনলাইন ডেস্ক ॥ মহররম মাসের মহিমান্বিত আশুরার দিন দেবী দুর্গার প্রতিমা বিসর্জন না করার নির্দেশ দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার এমন সিদ্ধান্তে বেশ চটেছেন বিরোধীরা। বিষয়টি গড়িয়েছে আদালত পর্যন্তও। এমন পরিস্থিতিতে গতকাল শনিবার পূজার এক উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে নিজের এ সিদ্ধান্তের ব্যাখ্যা দিলেন মমতা।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমার তো কোনো দিনই বিসর্জনে আপত্তি নেই। কিন্তু রাস্তায় যদি মহরমের ভিড় হয়। তাহলে কি তার মধ্যে দিয়ে বিসর্জনের মিছিল যেতে পারে? নাকি তার জন্য পুলিশ লাঠি-গুলি চালিয়ে জায়গা করে দেবে?’

দুর্গা পূজার প্রতিমা বিসর্জন কেন্দ্র করে গত কয়েক দিনে বিস্তর জলঘোলা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। মামলাও গড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত। হাইকোর্টের রায় দেখে প্রথমে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার কথা ভাবলেও পরে সিদ্ধান্ত বদল করেছে রাজ্য।

তবে নবান্নের কর্তারা বলছেন, হাইকোর্টের রায়ে বিসর্জনের সিদ্ধান্ত প্রশাসনের হাতেই রয়েছে। একাদশীর দিন বিসর্জন দিতে চাইলে পুলিশের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে এবং সে ক্ষেত্রে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত দেবে প্রশাসন।

এ ছাড়া মহরমের দিনে বিসর্জন বন্ধ করে সরকার সংখ্যালঘু (রাজ্যে বসবাসরত মুসলমান) তোষণ করছে বলেও অভিযোগ ওঠেছে। তবে সে অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছেন মমতা। জানিয়েছেন, শুধু বিসর্জন নয়, মহররমের আগে মহড়ার মিছিলও নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে।

মহরমের দিন বিসর্জন নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নানা অপপ্রচার চালানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন মমতা। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বসিরহাটের ঘটনার সময়ে যেমন ফেসবুকে কুৎসা ছড়িয়েছিল, এখনও সেটাই করা হচ্ছে। এর জবাব দিতে হবে। মহিলারাও ফেসবুকে এর জবাব দেবেন।’

একই সঙ্গে কোনো ধরনের প্ররোচনায় পা না দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে উৎসবে সামিল হতে অনুরোধ করেন মমতা।

উল্লেখ্য, এ বছর বিজয়া দশমী হবে ৩০ সেপ্টেম্বর (শনিবার) এবং আশুরা তার পরদিন ১ অক্টোবর (রোববার)। বিজয়া দশমীর দিন থেকে পরের কয়েক দিন দেবী দুর্গার প্রতিমা বিসর্জন দেয়া হয়। মমতা বলছেন, ৩০ সেপ্টেম্বর প্রতিমা বিসর্জন হবে কিন্তু ১ অক্টোবর বিরত থাকতে হবে। এরপর আবার ২, ৩ ও ৪ অক্টোবর বিসর্জন দেয়া হবে। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: