১২ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

যুবসমাজকে বাদ দিয়ে কোনো উন্নয়নই সম্ভব নয় ॥ যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী


যুবসমাজকে বাদ দিয়ে কোনো উন্নয়নই সম্ভব নয় ॥ যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদদাতা, জামালপুর ॥ মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে স্বাধীনতা অর্জনকারী বাঙালি জাতি পরমুখাপেক্ষী হয়ে বেঁচে থাকতে পারে না। ভাষা আন্দোলন, শিক্ষা কমিশনের বিরুদ্ধে আন্দোলন, ছয়দফা আন্দোলন, গণঅভ্যূত্থান, এরপর স্বাধীনতা যুদ্ধ থেকে শুরু করে প্রতিটি ক্ষেত্রে এই দেশের যুবকেরাই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

দেশের জন্য সব অর্জনই সাধিত হয়েছে এই যুবকদের দ্বারাই। তাই দেশের তিনভাগের এক ভাগ এই যুবসমাজকে বাদ দিয়ে কোনো উন্নয়নই সম্ভব হবে না। প্রতিমন্ত্রী শনিবার দুপুরে জামালপুরে ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির ৫ম পর্বের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর জামালপুর সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজ ক্যাম্পাসে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই উদ্বোধক বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদারসহ অন্যান্য অতিথিদের নিয়ে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার আরও বলেন, অতীতের সরকারগুলো শুধু নিজেদের ভাগাভাগি নিয়ে চিন্তা করেছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যা যা বলেন, তা মনে রাখেন এবং বাস্তবায়ন করেন। ২০০৮ সালের নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছিলেন যদি আবার ক্ষমতায় যেতে পারি তাহলে একটা যুবকও বেকার থাকবে না, প্রতিটি ঘরে ঘরে চাকরি দেওয়া হবে। নির্বাচনের পর ক্ষমতাসীন হয়েই প্রধানমন্ত্রী ভুলে যাননি।

নির্বাচনী অঙ্গীকার বাস্তবায়ন করতেই তিনি নিজে থেকেই এই ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচি চালু করে দেশে শিক্ষিত বেকারদের প্রশিক্ষণ দিয়ে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের বেকার যুবক ও যুব-নারীদের নিয়ে ন্যাশনাল কর্মসূচি দক্ষিণ এশিয়ায় সারা জাগিয়েছে। শ্রীলঙ্কা এ কার্যক্রম শুরু করলেও বিশ্বের আর কোথাও বাংলাদেশের মতো এই কর্মসূচিতে কেউ সফলতা পায়নি। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর সম্মেলনে ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির টেকনিক শুনে সবাই অবাক হয়ে গেছেন। আগের বক্তাদের কাছেই তো শুনলেন এই কর্মসূচির কারণেই দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে আমাকে শ্রেষ্ঠ যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে তারা। তিনি ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচি বাস্তবায়নের সরকারের সংশ্লিষ্ট সকলকে দায়িত্বশীলতার সাথে কাজ করার আহ্বান জানান।

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আনোয়ারুল করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান উদ্বোধকের বক্তব্য রাখেন বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম। এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ভূমি মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির সভাপতি সংসদ সদস্য মো. রেজাউল করিম হীরা ও সদস্য সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক, ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির পরিচালক আবুল হাছান খান, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব আজিজুল হক, জামালপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী, জামালপুর পৌরসভার মেয়র মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি, জামালুরের জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীর, পুলিশ সুপার মো. দেলোয়ার হোসেন জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইনজীবী মুহাম্মদ বাকি বিল্লাহ ও সহসভাপতি সৈয়দ আতিকুর রহমান ছানা, ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির উপকারভুগী মহুয়া জান্নাত ও মনিরুজ্জামান মনি প্রমুখ।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: