১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

জাতীয় ঐক্যের কথা বলতে বলতে আমরা ক্লান্ত ॥ ফখরুল


জাতীয় ঐক্যের কথা বলতে বলতে আমরা ক্লান্ত ॥ ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রোহিঙ্গা সঙ্কট নিরসনে জাতীয় ঐক্যের বিকল্প নেই মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এই জাতীয় ঐক্যের বলতে বলতে আমরা ক্লান্ত হয়ে গেছি। আওয়ামী লীগ তো কখনও ঐক্যের কথা বিশ্বাস করে না। সরকারেরও এই বিষয়ে কোনো আগ্রহ নেই। বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রান সহায়তা সংগ্রহ করতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। নগর বিএনপির দক্ষিণের পক্ষ থেকে রোহিঙ্গা ত্রাণ সহায়তা দুই লাখ টাকা দলের মহাসচিবেব হাতে তুলে দেন দায়িত্বশীলরা।

ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগের বেলায় প্রযোজ্য একটি প্রবাদ আছে, আমি ছাড়া আর কেউ নেই। তাই আমরা সব সময়েই বলে আসছি রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে জাতীয় ঐক্যের উদ্যোগ নেওয়া উচিত। কারণ, মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের সংখ্যা প্রায় ১ মিলিয়ন ছাড়িয়ে গেছে। তাদের ফিরিয়ে দিতে হলে বিশ্ব জনমত তৈরির জন্য জাতীয় ঐক্যের বিকল্প নেই। কিন্তু আমাদের কথায় আওয়ামী লীগ কর্ণপাত করছে না।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, রোহিঙ্গা সঙ্কট বাংলাদেশের জন্য এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। সরকার প্রথমদিকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে সাড়া না দিলেও পরে যখন বিশ্বাবাসী সোচ্চার হয়েছে, তখন পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেনি। রোহিঙ্গা সঙ্কট মোকাবিলায় সমগ্র বিশ্বকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে ফখরুল বলেন, রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ান এবং গণহত্যা বন্ধ করে বাংলাদেশ থেকে তাদের ফেরত নিতে মিয়ানমারকে বাধ্য করুন।

মির্জা ফখরুল বলেন, বাংলাদেশের মানুষ রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছে এবং তারা যথাসাধ্য সামর্থ্য নিয়ে রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়াচ্ছে। রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমার সরকারের নির্যাতন মানবতার ওপর নির্যাতন। এতে মানবতার অপমান হচ্ছে আজ। মানবতাকে টুটি চিপে হত্যা করা হচ্ছে। আমরা এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছি।

অনুষ্ঠানে ঢাকা মহানগর বিএনপি দক্ষিণের পক্ষ থেকে রোহিঙ্গাদের ত্রাণ সহায়তা দিতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের হাতে দুই লাখ টাকা তুলে দেয়া হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর বিএনপি দক্ষিণের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার প্রমুখ।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: