১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

খালেদার দুই দুর্নীতি মামলার পরবর্তী শুনানি ২৮ সেপ্টেম্বর


খালেদার দুই দুর্নীতি মামলার পরবর্তী শুনানি ২৮ সেপ্টেম্বর

স্টাফ রিপোর্টার॥ জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় প্রথম তদন্ত কর্মকর্তাকে পুনঃজেরা আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মুলতবি করেছেন আদালত। অন্যদিকে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আত্মপক্ষ সমর্থন পিছিয়ে একইদিন পুনর্নির্ধারণ করেছেন।

আজ বৃহস্পতিবার অনুপস্থিত খালেদার আইনজীবীদের সময়ের আবেদনে দুই মামলারই পরবর্তী শুনানির এ দিন ধার্য করেন রাজধানীর বকশিবাজারে কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ ড. মো. আখতারুজ্জামানের আদালত। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ওই দুই দুর্নীতি মামলার বিচারিক কার্যক্রম চলছে এ আদালতে।

চ্যারিটেবল মামলার প্রথম তদন্ত কর্মকর্তা নুর আহমেদকে খালেদা জিয়ার পক্ষে পুনঃজেরা শেষ করেছেন অ্যাড. আমিনুল ইসলাম। আগামী ধার্য দিন ২৮ সেপ্টেম্বর শুরু হবে আসামি মনিরুল ইসলামের পক্ষে পুন:জেরা। অন্যদিকে উচ্চ আদালতে আপিল শুনানির অপেক্ষায় থাকার কথা বলে অরফানেজ মামলার প্রধান আসামি খালেদা জিয়ার ৩৪২ ধারায় আত্মপক্ষ সমর্থনের দিন পেছানোর আবেদন জানানো হলে তা মঞ্জুর করেন আদালত। চ্যারিটেবলে গত বছরের ১ ডিসেম্বর আত্মপক্ষ সমর্থনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করতে শুরু করেন খালেদা। কিন্তু ওই দিন বক্তব্য শেষ না হওয়ায় সময় চান তিনি। এরপর কয়েক দফায় আদালতে না গিয়ে সময় বাড়িয়ে নেন। অন্যদিকে উচ্চ আদালতে নানা আবেদন ও অসুস্থতার কথা বলে বেশ কয়েকবার পিছিয়ে নিয়েছেন অরফানেজে আত্মপক্ষ সমর্থনের দিন।

২০১০ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা দায়ের করা হয়। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগ এনে এ মামলা করা হয়। অন্যদিকে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা দায়ের করে দুদক। এতিমদের সহায়তা করার উদ্দেশে একটি বিদেশি ব্যাংক থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ এনে এ মামলা করা হয়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: